Zechariah 2

1তারপর আমি চোখ তুলে মাপের দড়ি হাতে একজন লোককে দেখতে পেলাম। আমি জিজ্ঞাসা করলাম, “আপনি কোথায় যাচ্ছেন?” উত্তরে তিনি আমাকে বললেন, “যিরূশালেম কতটা চওড়া ও কতটা লম্বা তা মেপে দেখতে যাচ্ছি।” 3যে স্বর্গদূত আগে আমার সংগে কথা বলেছিলেন তিনি চলে যাচ্ছিলেন, এমন সময় আর একজন স্বর্গদূত তাঁর সংগে দেখা করতে আসলেন। 4তিনি তাঁকে বললেন, “আপনি দৌড়ে গিয়ে ঐ যুবককে বলুন, ‘যিরূশালেমের মধ্যে মানুষ ও পশু সংখ্যায় বেশী হওয়ার দরুন তাতে কোন দেয়াল থাকবে না। 5সদাপ্রভু বলছেন যে, তিনি নিজেই তার চারপাশে আগুনের দেয়াল হবেন এবং তিনিই তাঁর মহিমায় সেখানে থাকবেন।’ ” 6সদাপ্রভু বলছেন, “শোন, শোন। আমি তো চারদিকে তোমাদের ছড়িয়ে দিয়েছিলাম, কিন্তু এখন তোমরা উত্তর দেশ থেকে পালিয়ে এস। 7ওহে সিয়োনের লোকেরা, তোমরা যারা বাবিলে বাস করছ, তোমরা পালিয়ে এস।” 8সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু তাঁর গৌরব প্রকাশ করবার জন্য আমাকে সেই সব জাতির কাছে পাঠিয়েছেন যারা তোমাদের লুট করেছে। তিনি বলছেন, “যে কেউ তোমাদের ছোঁয় সে আমার চোখের মণি ছোঁয়। 9আমি তাদের বিরুদ্ধে নিশ্চয়ই আমার হাত উঠাব, তাতে তাদের দাসেরা তাদের লুট করবে।” এটা যখন ঘটবে তখন তোমরা বুঝতে পারবে যে, সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভুই আমাকে পাঠিয়েছেন। 10সদাপ্রভু বলছেন, “হে সিয়োন-কন্যা, আনন্দে গান কর এবং খুশী হও, কারণ আমি আসছি, আর আমি তোমাদের মধ্যে বাস করব। 11সেই দিন অনেক জাতি আমার সংগে যুক্ত হয়ে আমার লোক হবে। আমি তোমাদের মধ্যে বাস করব।” যখন তা ঘটবে তখন তোমরা জানবে যে, সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু আমাকে তোমাদের কাছে পাঠিয়েছেন। 12পবিত্র দেশে তাঁর সম্পত্তি হিসাবে সদাপ্রভু যিহূদা দেশ অধিকার করবেন এবং যিরূশালেমকে আবার বেছে নেবেন। 13হে সমস্ত মানুষ, তোমরা সদাপ্রভুর সামনে নীরব হও, কারণ তিনি বিচার করবার জন্য তাঁর পবিত্র বাসস্থান থেকে বের হয়ে আসছেন।

will be added

X\