Proverbs 29

1অনেক বার সংশোধনের কথা শুনেও যে লোক ঘাড় শক্ত করে রাখে সে মুহূর্তের মধ্যে চুরমার হয়ে যাবে; সে আর উঠতে পারবে না। 2ঈশ্বরভক্ত লোকদের সংখ্যা বাড়লে লোকে আনন্দ করে, কিন্তু দুষ্ট লোক শাসনকর্তা হলে লোকে কাত্‌রায়। 3যে লোক জ্ঞান ভালবাসে সে তার বাবাকে আনন্দ দেয়, কিন্তু যে বেশ্যাদের সংগে থাকে সে তার ধন নষ্ট করে। 4ন্যায়বিচারের দ্বারা রাজা দেশকে স্থির রাখেন, কিন্তু যে ঘুষ খেতে ভালবাসে সে দেশকে ধ্বংস করে ফেলে। 5যে লোক প্রতিবেশীকে খোসামোদ করে সে নিজের পায়ের নীচে জাল পাতে। 6দুষ্ট লোক নিজের পাপের দ্বারা ফাঁদে পড়ে, কিন্তু ঈশ্বরভক্ত লোক আনন্দিত হয় ও গান করে। 7গরীবদের প্রতি যেন ন্যায়বিচার করা হয় সেদিকে ঈশ্বরভক্ত লোকদের চোখ আছে, কিন্তু দুষ্টেরা এই সব কিছুই বোঝে না। 8ঠাট্টা-বিদ্রূপ কারীরা শহরের মধ্যে গোলমাল বাধিয়ে দেয়, কিন্তু জ্ঞানী লোকেরা মানুষের রাগ শান্ত করে। 9বুদ্ধিমান লোক যদি অসাড়-বিবেক লোকের বিরুদ্ধে মামলা করে তবে সেই লোক হয় রেগে যাবে না হয় হাসবে, আর তাতে কোন মীমাংসা হবে না।~ 10যারা রক্তপাত করে তারা নির্দোষ লোককে ঘৃণা করে এবং সৎ লোককে মেরে ফেলবার চেষ্টা করে। 11বিবেচনাহীন লোক তার রাগ পুরোপুরি প্রকাশ করে, কিন্তু জ্ঞানী লোক নিজেকে দমন করে রাখে। 12যে শাসনকর্তা মিথ্যা কথায় কান দেয় তার সব কর্মচারী দুষ্ট। 13গরীব ও অত্যাচারী একটা ব্যাপারে সমান- সদাপ্রভু তাদের দু’জনকেই জীবন দিয়েছেন। 14যে রাজা সততার সংগে গরীবদের বিচার করেন তাঁর সিংহাসন সব সময় স্থির থাকে। 15সংশোধনের কথা ও শাসনের লাঠি জ্ঞান দান করে, কিন্তু যে ছেলেকে শাসন করা হয় না সে তার মাকে লজ্জা দেয়। 16দুষ্ট লোকদের সংখ্যা বাড়লে পাপের বৃদ্ধি হয়, কিন্তু ঈশ্বরভক্ত লোক তাদের ধ্বংস দেখতে পায়। 17তোমার ছেলেকে শাসন কর, তাতে সে তোমাকে শান্তিতে রাখবে আর তোমার প্রাণে আনন্দ দেবে। 18যেখানে নবীদের মধ্য দিয়ে ঈশ্বর তাঁর সত্য প্রকাশ করেন না সেখানকার লোকেরা উচ্ছঙ্খল হয়; কিন্তু সেই লোক ধন্য যে সদাপ্রভুর আইন-কানুন মেনে চলে। 19কেবল কথার দ্বারা দাসকে সংশোধন করা যায় না; সে বুঝলেও তা মানবে না। 20তুমি কি এমন লোককে দেখেছ যে তাড়াতাড়ি করে কথা বলতে যায়? তার চেয়ে বরং বিবেচনাহীনের বিষয়ে আশা আছে। 21ছেলেবেলা থেকে যদি কোন দাসকে আশ্‌কারা দেওয়া হয়, শেষে তাকে দমন করা যায় না। 22রাগী লোক ঝগড়া খুঁচিয়ে তোলে, আর বদমেজাজী লোক অনেক পাপ করে। 23অহংকার মানুষকে নীচে নামায়, কিন্তু নম্র স্বভাবের লোক সম্মান পায়। 24যে চোরের ভাগীদার সে নিজেই নিজের শত্রু; তাকে শপথনামা শুনানো হলেও সে কোন কিছু স্বীকার করে না। 25মানুষকে যে ভয় করে সেই ভয় তার পক্ষে ফাঁদ হয়ে দাঁড়ায়, কিন্তু যে সদাপ্রভুর উপর নির্ভর করে সে নিরাপদে থাকে। 26বিচারে অনেকে শাসনকর্তাকে নিজের পক্ষে আনতে চায়, কিন্তু সদাপ্রভুর কাছ থেকে মানুষ ন্যায়বিচার পায়। 27ঈশ্বরভক্ত লোকেরা অন্যায়কারীকে ঘৃণার চোখে দেখে, আর যে লোক সোজা পথে চলে দুষ্টেরা তাকে ঘৃণা করে।

will be added

X\