Proverbs 28

1কেউ তাড়া না করলেও দুষ্ট লোক পালায়, কিন্তু ঈশ্বরভক্ত লোক সিংহের মত নির্ভয়ে বাস করে। 2দেশের লোকদের অন্যায়ের ফলে অনেক শাসনকর্তা হয়, কিন্তু জ্ঞানী ও বুদ্ধিমান শাসনকর্তা শৃঙ্খলা বজায় রাখেন। 3যে গরীব নেতা অসহায়দের উপর অত্যাচার করে সে এমন বৃষ্টির ঢলের মত যার পরে আর কোন ফসল থাকে না। 4যারা সদাপ্রভুর আইন-কানুন ত্যাগ করে তারা দুষ্টদের প্রশংসা করে, কিন্তু যারা তা মানে তারা দুষ্টদের বিরুদ্ধে দাঁড়ায়। 5মন্দ লোকেরা ন্যায়বিচার সম্বন্ধে বোঝে না, কিন্তু যারা সদাপ্রভুর ইচ্ছামত চলে তাদের ভাল-মন্দ বুঝবার শক্তি আছে। 6যে ধনী লোক বাঁকা পথে চলে তার চেয়ে বরং সেই গরীব লোকটি ভাল যে সততায় চলাফেরা করে। 7যে ছেলে আইন-কানুন মানে সে বুদ্ধিমান, কিন্তু যে ছেলে পেটুকদের সংগী সে তার বাবার জন্য অসম্মান নিয়ে আসে। 8যে কোন রকম সুদ নিয়ে যে লোক তার ধন বাড়ায়, সে তা এমন একজনের জন্য জমায় যে গরীবদের প্রতি দয়ালু। 9সদাপ্রভুর আইন-কানুনের কথা যদি কেউ শুনেও না শোনে, তবে তার প্রার্থনা পর্যন্ত ঘৃণার যোগ্য হয়। 10সৎ লোককে যে কুপথে নিয়ে যায় সে তার নিজের গর্তেই পড়বে, কিন্তু যারা নির্দোষ তাদের মংগল হবে। 11ধনী লোক তার নিজের চোখে জ্ঞানী, কিন্তু যে গরীব লোকের বিচারবুদ্ধি আছে সে সেই ধনী লোকের আসল অবস্থা বুঝতে পারে। 12ঈশ্বরভক্ত লোকদের হাতে ক্ষমতা গেলে সকলের মংগল হয়, কিন্তু দুষ্টদের হাতে ক্ষমতা গেলে লোকদের খুঁজে পাওয়া যায় না। 13যে লোক নিজের পাপ গোপন করে তার উন্নতি হয় না, কিন্তু যে তা স্বীকার করে ত্যাগ করে সে করুণা পায়। 14যে লোক অন্যায় করতে সব সময় ভয় করে সে ধন্য, কিন্তু যে তার অন্তরকে কঠিন করে এবং অন্যায় করতে ভয় করে না সে বিপদে পড়ে। 15গর্জনকারী সিংহ আর আক্রমণকারী ভাল্লুক যেমন, তেমনি সেই দুষ্ট লোক যে অসহায় লোকদের শাসনকর্তা হয়। 16যে শাসনকর্তার বিচারবুদ্ধি নেই সে ভীষণ অত্যাচার করে; যে শাসনকর্তা লোভ ঘৃণা করে সে অনেক দিন বেঁচে থাকে। 17যে লোক খুন করে দুশ্চিন্তায় কষ্ট পাচ্ছে মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত সে পালিয়ে বেড়ায়; কেউ তাকে সাহায্য না করুক। 18যার চলাফেরা নির্দোষ সে নিরাপদে থাকে, কিন্তু যে লোক বাঁকা পথে চলে সে হঠাৎ পড়ে যাবে। 19যে লোক নিজের জমিতে পরিশ্রম করে তার প্রচুর খাবার থাকে, কিন্তু যে অসারতার পিছনে দৌড়ায় তার খুব অভাব হয়। 20বিশ্বস্ত লোক অনেক আশীর্বাদ পায়, কিন্তু যে ধনী হবার জন্য আকুল হয় সে শাস্তি পাবেই পাবে। 21বিচারে কারও পক্ষ নেওয়া ভাল নয়; যে তা করে সে এক টুকরা রুটির জন্যও অন্যায় করতে পারে। 22যে লোক লোভী সে ধনী হবার জন্য ব্যস্ত হয়, কিন্তু সে জানে না অভাব তার জন্য অপেক্ষা করে আছে। 23যে লোক খোসামুদে কথা বলে তার চেয়ে যে সংশোধনের কথা বলে সে শেষে বেশী সম্মান পায়। 24যে কেউ মা-বাবার জিনিস চুরি করে বলে, “এটা অন্যায় নয়,” সে ধ্বংসকারীর সংগী। 25যে লোক লোভী সে ঝগড়া খুঁচিয়ে তোলে, কিন্তু যে সদাপ্রভুর উপর নির্ভর করে তার উন্নতি হয়। 26যে নিজের জ্ঞানের উপর নির্ভর করে সে বিবেচনাহীন, কিন্তু যে ঈশ্বরের দেওয়া বুদ্ধির পথে চলে সে নিরাপদে থাকে। 27যে লোক গরীবকে দান করে তার অভাব হয় না, কিন্তু যে তাদের দেখে চোখ বুঁজে থাকে সে অনেক অভিশাপ কুড়ায়। 28দুষ্ট লোকদের হাতে ক্ষমতা গেলে লোকেরা লুকায়, কিন্তু সেই দুষ্টেরা ধ্বংস হলে ঈশ্বরভক্ত লোকদের সংখ্যা বাড়ে।

will be added

X\