Numbers 21

1অরাদের কনানীয় রাজা নেগেভে বাস করতেন। ইস্রায়েলীয়েরা অথারীমের পথ ধরে আসছে শুনে তিনি তাদের আক্রমণ করে কয়েকজনকে ধরে নিয়ে গেলেন। 2তখন ইস্রায়েলীয়েরা সদাপ্রভুর কাছে মানত করে বলল, “অরাদের এই লোকদের তুমি যদি আমাদের হাতের মুঠোয় এনে দাও, তবে আমরা তাদের গ্রাম ও শহরগুলো একেবারে ধ্বংস করে ফেলব।” 3সদাপ্রভু তাদের এই বিশেষ অনুরোধ শুনলেন এবং সেই কনানীয়দের তাদের হাতের মুঠোয় এনে দিলেন। ইস্রায়েলীয়েরা তাদের এবং তাদের গ্রাম ও শহরগুলো একেবারে ধ্বংস করে ফেলল। সেইজন্য ঐ জায়গাটার নাম হল হর্মা (যার মানে “ধ্বংসের অধীন”)। 4এর পর ইস্রায়েলীয়েরা ইদোম দেশের পাশ দিয়ে ঘুরে যাওয়ার জন্য হোর পাহাড়ের কাছ থেকে আকাবা উপসাগরের পথ ধরে চলল। কিন্তু পথে তারা ধৈর্য হারিয়ে ঈশ্বর ও মোশির বিরুদ্ধে বলতে লাগল, “এই মরু-এলাকাতে মারা পড়বার জন্য কেন তোমরা মিসর দেশ থেকে আমাদের বের করে এনেছ? এখানে রুটিও নেই জলও নেই, আর এই বাজে খাবার আমরা দু’চোখে দেখতে পারি না।” 6তখন সদাপ্রভু তাদের মধ্যে এক রকম বিষাক্ত সাপ পাঠিয়ে দিলেন। সেগুলোর কামড়ে অনেক ইস্রায়েলীয় মারা গেল। 7তখন লোকেরা গিয়ে মোশিকে বলল, “সদাপ্রভু ও আপনার বিরুদ্ধে কথা বলে আমরা পাপ করেছি। আপনি এখন সদাপ্রভুর কাছে অনুরোধ করুন যেন তিনি এই সব সাপ আমাদের কাছ থেকে সরিয়ে নেন।” তখন মোশি লোকদের জন্য অনুরোধ করলেন। 8এর উত্তরে সদাপ্রভু মোশিকে বললেন, “তুমি একটা সাপ তৈরী করে একটা খুঁটির উপরে রাখ। যাকে সাপে কামড়াবে সে ওটার দিকে তাকালে বেঁচে যাবে।” 9তখন মোশি একটা ব্রোঞ্জের সাপ তৈরী করে একটা খুঁটির উপরে লাগিয়ে রাখলেন। কাউকে সাপে কামড়ালে সে ঐ ব্রোঞ্জের সাপের দিকে চেয়ে দেখত আর তাতে সে বেঁচে যেত। 10এর পর ইস্রায়েলীয়েরা যাত্রা করে ওবোতে গিয়ে ছাউনি ফেলল। 11তারপর তারা ওবোৎ থেকে যাত্রা করে মরু-এলাকার মধ্যে ইয়ী-অবারীমে গিয়ে ছাউনি ফেলল। ইয়ী-অবারীম ছিল মোয়াবের পূর্ব দিকে মরু-এলাকার মধ্যে। 12তারপর সেখান থেকে যাত্রা করে তারা সেরদ উপত্যকাতে গিয়ে ছাউনি ফেলল। 13সেখান থেকে যাত্রা করে তারা অর্ণোন নদীর ওপারে গিয়ে ছাউনি ফেলল। ইমোরীয়দের দেশ থেকে যে মরু-এলাকাটা শুরু হয়েছে তার মধ্যে ছিল এই অর্ণোন নদীটা। নদীটার এক পাশে ছিল মোয়াব আর অন্য পাশে ছিল ইমোরীয়দের দেশ। 14সদাপ্রভুর যুদ্ধ নামে বইটাতে আছে, “আর্‌ শহরের দিকে চলে যাওয়া শূফা এলাকার বাহেব এবং অর্ণোন ও তার উপনদী বয়ে যাওয়া খাদগুলো এবং খাদের পাশে পাহাড়ের গায়ের ঢালু জায়গা, যেগুলো মোয়াবের এক দিকের সীমানা।” 16সেখান থেকে যাত্রা করে ইস্রায়েলীয়েরা বের নামে একটা কূয়ার কাছে আসল। এই কূয়ার কাছে সদাপ্রভু মোশিকে বললেন, “তুমি লোকদের একসংগে জড়ো কর, আমি তাদের জল দেব।” 17তখন ইস্রায়েলীয়েরা এই গানটা করল: “হে কূয়া, তুমি জলে ভরে ওঠো। তোমরা এই কূয়ার বিষয় নিয়ে গান কর। 18এটা সেই কূয়া যা শাসনকর্তারা শাসনদণ্ডের জোরে খুঁড়েছেন, যা গণ্যমান্য লোকেরা লাঠির জোরে করেছেন।” তারপর ইস্রায়েলীয়েরা সেই মরু-এলাকা থেকে মত্তানায়, 19মত্তানা থেকে নহলীয়েলে, নহলীয়েল থেকে বামোতে এবং বামোৎ থেকে মোয়াবের উপত্যকায় গেল। সেই উপত্যকার কাছে পিস্‌গা পাহাড়শ্রেণীর মধ্যেকার সবচেয়ে উঁচু পাহাড়ের উপর থেকে মরু-এলাকার যিশীমোন নামে জায়গাটা দেখা যায়। 21ইস্রায়েলীয়েরা ইমোরীয়দের রাজা সীহোনের কাছে লোক পাঠিয়ে অনুরোধ করল, 22“আপনার রাজ্যের মধ্য দিয়ে আমাদের যেতে দিন। আমরা রাস্তা ছেড়ে কোন জমির মধ্যে বা আংগুর ক্ষেতে যাব না, কিম্বা কোন কূয়া থেকে জলও খাব না। আপনার রাজ্য পার হয়ে না যাওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ধরেই চলতে থাকব।” 23কিন্তু সীহোন তাঁর রাজ্যের মধ্য দিয়ে ইস্রায়েলীয়দের যেতে দিলেন না। তিনি তাঁর সমস্ত সৈন্যদল নিয়ে মরু-এলাকায় ইস্রায়েলীয়দের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে গেলেন। তিনি যহস শহরে উপস্থিত হয়ে ইস্রায়েলীয়দের সংগে যুদ্ধ করলেন। 24এই যুদ্ধে ইস্রায়েলীয়েরা তাঁকে মেরে ফেলে অর্ণোন থেকে যব্বোক নদী পর্যন্ত তাঁর দেশটা অধিকার করে নিল। তারা কেবল অম্মোনীয়দের সীমানা পর্যন্ত অধিকার করতে পেরেছিল, কারণ অম্মোনীয়দের দেশের সীমানাটা এমন ছিল যা ডিংগিয়ে যাওয়া সহজ ছিল না। 25ইস্রায়েলীয়েরা হিষ্‌বোন ও তার আশেপাশের গ্রামগুলো সুদ্ধ ইমোরীয়দের সমস্ত শহর দখল করে নিল এবং সেখানে বাস করতে লাগল। 26হিষ্‌বোন ছিল ইমোরীয়দের রাজা সীহোনের রাজধানী। তিনি মোয়াব দেশের আগেকার রাজার সংগে যুদ্ধ করে তাঁর কাছ থেকে অর্ণোন নদী পর্যন্ত সমস্ত দেশটা দখল করে নিয়েছিলেন। 27এইজন্যই কবিরা বলেছেন: “তোমরা হিষ্‌বোনে এসে শহরটা আবার গড়ে তোলো। সীহোনের শহরটা আবার গড়ে তোলা হোক। 28সীহোনের শহর হিষ্‌বোন থেকে আগুন বেরিয়ে এসে মোয়াব দেশের আর্‌ শহরটা পুড়িয়ে দিল আর অর্ণোন নদীর কাছের উঁচু জায়গার বাসিন্দাদের পুড়িয়ে দিল। 29হায় মোয়াব! হে কমোশ দেবতার লোকেরা, তোমরা ধ্বংস হয়ে গেছ। কমোশের ছেলেরা পালিয়ে গিয়েছে আর মেয়েরা ইমোরীয়দের রাজা সীহোনের বন্দিনী হয়েছে। 30কিন্তু আমরা তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছি। দীবোন পর্যন্ত হিষ্‌বোন ধ্বংস হয়ে গেছে। মেদবা পর্যন্ত চলে গেছে যে নোফঃ সেই জায়গা পর্যন্ত আমরা ধ্বংস করেছি।” 31এর পর ইস্রায়েলীয়েরা ইমোরীয়দের দেশে বাস করতে লাগল। 32মোশি যাসের শহরে গুপ্তচর পাঠিয়ে দেবার পর ইস্রায়েলীয়েরা সেই শহরের আশেপাশের গ্রামগুলো দখল করে নিল এবং সেখানকার ইমোরীয়দের তাড়িয়ে দিল। 33তারপর তারা ঘুরে বাশন দেশের রাস্তা ধরে এগিয়ে যেতে লাগল। তখন বাশনের রাজা ওগ তাঁর সমস্ত সৈন্য-সামন্ত নিয়ে বের হয়ে তাদের সংগে যুদ্ধ করবার জন্য ইদ্রিয়ী শহরে উপস্থিত হলেন। 34তখন সদাপ্রভু মোশিকে বললেন, “রাজা ওগকে ভয় কোরো না, কারণ আমি তার দেশ এবং তাকে ও তার সমস্ত সৈন্য-সামন্তকে তোমার হাতের মুঠোয় দিয়ে দিয়েছি। ইমোরীয়দের রাজা সীহোন, যে হিষ্‌বোনে রাজত্ব করত, তুমি তার অবস্থা যা করেছ এর অবস্থাও তা-ই করবে।” 35তখন তারা ওগকে এবং তাঁর ছেলেদের ও তাঁর সমস্ত সৈন্য-সামন্তদের মেরে ফেলল। শেষ পর্যন্ত তাঁর আর কেউ বেঁচে রইল না। তারা তাঁর দেশটাও অধিকার করে নিল।

will be added

X\