Joshua 7

1যিরীহো শহরের ধ্বংসের অভিশাপের অধীনে থাকা জিনিসের ব্যাপারে ইস্রায়েলীয়েরা অবিশ্বস্ত হয়েছিল। যিহূদা-গোষ্ঠীর কর্মির ছেলে আখন ঐ সব জিনিস থেকে কয়েকটা নিজের জন্য নিয়েছিল। কর্মি ছিল সব্দির ছেলে আর সেরহের নাতি। আখনের এই কাজের জন্য ইস্রায়েলীয়দের উপর সদাপ্রভুর ক্রোধ জ্বলে উঠেছিল। 2যিহোশূয় যিরীহো থেকে অয় শহরে লোক পাঠালেন। সেই শহরটা ছিল বৈথেল শহরের পূর্ব দিকে বৈৎ-আবন শহরের কাছে। সেই লোকদের পাঠাবার সময় তিনি তাদের বলে দিলেন, “তোমরা গিয়ে দেশটা ভাল করে দেখে এস।” কাজেই লোকগুলো গিয়ে গোপনে অয় শহরের খোঁজ-খবর নিল। 3পরে তারা যিহোশূয়ের কাছে ফিরে এসে বলল, “অয় শহরের বিরুদ্ধে সব লোকদের যাওয়ার দরকার নেই। ওটা দখল করবার জন্য দুই কিম্বা তিন হাজার লোক পাঠিয়ে দিন। এই নিয়ে সব লোকদের কষ্ট দেবেন না, কারণ সেখানকার লোকসংখ্যা খুব কম।” 4সেইজন্য কমবেশি তিন হাজার লোক সেখানে গেল; কিন্তু তারা অয় শহরের লোকদের কাছে হেরে গিয়ে পালিয়ে আসতে বাধ্য হল। 5শহরের ফটকের কাছ থেকে অয় শহরের লোকেরা ইস্রায়েলীয়দের তাড়া করে শবারীম পর্যন্ত নিয়ে গেল এবং শবারীমের ঢালু জায়গায় তাদের ছত্রিশজনকে মেরে ফেলল। এতে ইস্রায়েলীয়দের মনোবল একেবারে ভেংগে পড়ল। 6তখন যিহোশূয় ও ইস্রায়েলীয়দের বৃদ্ধ নেতারা নিজেদের কাপড় ছিঁড়ে সদাপ্রভুর সিন্দুকের সামনে সন্ধ্যা পর্যন্ত মাটির উপর উবুড় হয়ে পড়ে রইলেন। তাঁরা নিজেদের মাথার উপর ধুলা ছিটিয়ে দিলেন। 7যিহোশূয় বললেন, “হে প্রভু সদাপ্রভু, তুমি কেন আমাদের এই জাতিকে যর্দন পার করে এনে ধ্বংস করবার জন্য ইমোরীয়দের হাতে তুলে দিলে? হায়, আমরা যদি যর্দনের ওপারে থেকেই খুশী থাকতাম! 8হে প্রভু, ইস্রায়েলীয়েরা শত্রুদের কাছে হার মেনে পালিয়ে আসবার পরে আমার আর বলবার কি থাকতে পারে? 9কনানীয়েরা এবং এই দেশের অন্যান্য লোকেরা এই কথা শুনতে পাবে আর তারা আমাদের ঘেরাও করবে এবং দুনিয়ার বুক থেকে আমাদের নাম মুছে ফেলবে। এর পর তুমি কি করে তোমার সুনাম রক্ষা করবে?” 10তখন সদাপ্রভু যিহোশূয়কে বললেন, “উঠে দাঁড়াও। কেন তুমি উবুড় হয়ে পড়ে আছ? 11ইস্রায়েলীয়েরা পাপ করেছে; আমি তাদের আমার যে ব্যবস্থা পালন করতে বলেছিলাম তা তারা পালন করে নি। যে সব জিনিস ধ্বংসের অভিশাপের অধীন তার কতগুলো তারা নিয়েছে; তারা চুরি করেছে, মিথ্যা কথা বলেছে আর সেই সব জিনিস নিয়ে তারা তাদের নিজেদের জিনিসের সংগে রেখেছে। 12সেইজন্যই ইস্রায়েলীয়েরা তাদের শত্রুদের সামনে দাঁড়াতে পারছে না; তারা পিছন ফিরে পালাচ্ছে, কারণ তারা ধ্বংসের অভিশাপের অধীন হয়ে পড়েছে। ধ্বংসের অভিশাপের অধীন কতগুলো জিনিস তোমাদের কাছে আছে। যদি তোমরা সেগুলো ধ্বংস করে না ফেল তবে আমি আর তোমাদের সংগে থাকব না। 13“তুমি গিয়ে লোকদের আমার উদ্দেশ্যে আলাদা করে নাও। তাদের বল যেন তারা কালকের জন্য নিজেদের শুচি করে। ইস্রায়েলীয়দের ঈশ্বর সদাপ্রভু বলছেন, ‘হে ইস্রায়েল, তোমাদের মধ্যে এমন কতগুলো জিনিস রয়েছে যা ধ্বংসের অভিশাপের অধীন। সেগুলো তোমাদের মধ্য থেকে দূর করে না ফেলা পর্যন্ত তোমরা তোমাদের শত্রুদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে পারবে না। 14কাজেই, সকালবেলা তোমরা গোষ্ঠী অনুসারে আমার সামনে এসে দাঁড়াবে। যে গোষ্ঠী আমার হাতে ধরা পড়বে সেই গোষ্ঠী বংশ অনুসারে এগিয়ে আসবে; তার মধ্যে যে বংশ আমার হাতে ধরা পড়বে সেই বংশের লোকেরা পরিবার অনুসারে এগিয়ে আসবে; তার মধ্যে যে পরিবার আমার হাতে ধরা পড়বে সেই পরিবারের লোকেরা এক একজন করে এগিয়ে আসবে। 15যা ধ্বংসের অভিশাপের অধীন তা যে লোকটির কাছে আছে বলে ধরা পড়বে তাকে তার সব কিছু সুদ্ধ আগুনে পুড়িয়ে ফেলতে হবে। সে সদাপ্রভুর ব্যবস্থা অমান্য করেছে এবং এমন একটা কাজ করেছে যা ইস্রায়েলীয়দের পক্ষে একটা লজ্জার ব্যাপার।’ ” 16পরের দিন খুব ভোরে যিহোশূয় গোষ্ঠী অনুসারে ইস্রায়েলীয়দের সদাপ্রভুর সামনে আনলেন, তাতে যিহূদা-গোষ্ঠী ধরা পড়ল। 17তারপর যিহূদা-গোষ্ঠীর বংশগুলো এগিয়ে আসলে পর সেরহীয় বংশ ধরা পড়ল। তারপর সেরহীয় বংশের নেতারা এক এক করে এগিয়ে আসলে পর সব্দি ধরা পড়ল। 18পরে সব্দির পরিবারের লোকেরা এক এক করে সামনে আসলে পর যিহূদা-গোষ্ঠীর কর্মির ছেলে আখন ধরা পড়ল। কর্মি ছিল সব্দির ছেলে আর সেরহের নাতি। 19যিহোশূয় তখন আখনকে বললেন, “বাবা, সত্যি কথা বলে ইস্রায়েলীয়দের ঈশ্বর সদাপ্রভুর গৌরব কর, তাঁর প্রশংসা কর; তুমি যা করেছ তা আমাকে বল, গোপন কোরো না।” 20উত্তরে আখন বলল, “এই কথা সত্যি যে, আমি ইস্রায়েলীয়দের ঈশ্বর সদাপ্রভুর বিরুদ্ধে পাপ করেছি। আমি যে কাজ করেছি তা এই: 21আমি লুটের মালের মধ্যে শিনিয়র দেশের সুন্দর একটা কাপড়, প্রায় আড়াই কেজি রূপা আর ছ’শো গ্রাম ওজনের একটা সোনার খণ্ড দেখে লোভ সামলাতে না পেরে তা নিয়েছি। ওগুলো আমার তাম্বুর ভিতরে মাটির নীচে লুকানো আছে আর সবগুলোর নীচে আছে রূপা।” 22এই কথা শুনে যিহোশূয় লোক পাঠিয়ে দিলেন। তারা দৌড়ে সেই তাম্বুর মধ্যে গিয়ে দেখল সেখানে জিনিসগুলো লুকানো রয়েছে, আর সব কিছুর নীচে রয়েছে রূপা। 23তারা সেগুলো তাম্বু থেকে বের করে যিহোশূয় ও সমস্ত ইস্রায়েলীয়দের কাছে নিয়ে আসল এবং সদাপ্রভুর সামনে সেগুলো বিছিয়ে রাখল। 24পরে যিহোশূয় ও সমস্ত ইস্রায়েলীয়েরা সেরহের বংশধর আখনকে নিয়ে আখোর উপত্যকায় গেল। তারা সংগে নিল সেই রূপা, কাপড়, সোনার খণ্ড, আখনের ছেলেমেয়ে, তার গরু-গাধা-ভেড়া, তার তাম্বু আর তার যা কিছু ছিল সব। 25তারপর যিহোশূয় বললেন, “কেন তুমি আমাদের উপর এই বিপদ ডেকে আনলে? আজ সদাপ্রভুও তোমার উপর বিপদ আনবেন।” তখন সমস্ত ইস্রায়েলীয়েরা প্রথমে আখনকে ও পরে তার পরিবারের সবাইকে পাথর ছুঁড়ে মেরে ফেলল। তারপর সব কিছু সুদ্ধ তাদের পুড়িয়ে ফেলল। 26আখনের দেহের উপরে তারা অনেক পাথর জড়ো করে একটা স্তূপ করে রাখল। সেটা আজও রয়েছে। এর পর সদাপ্রভু তাঁর ক্রোধ থেকে ফিরলেন। এইজন্যই ঐ জায়গাটাকে এর পর থেকে আখোর উপত্যকা বলা হয়ে থাকে।

will be added

X\