Joel 2

1তোমরা সিয়োনে তূরী বাজাও, বাজাও বিপদ-সংকেত আমার পবিত্র পাহাড়ে। দেশে বাসকারী সবাই কাঁপুক, কারণ সদাপ্রভুর দিন আসছে; সেই দিন কাছে এসে গেছে। 2তা অন্ধকার ও গাঢ় অন্ধকারের দিন, মেঘের ও ঘোর অন্ধকারের দিন। পাহাড়-পর্বতের উপরে যেমন ভোরের আলো ছড়িয়ে পড়ে তেমনি করে একটা বিরাট ও শক্তিশালী পংগপালের সৈন্যদল আসছে। এই রকম সৈন্যদল আগেকার কালে কখনও ছিল না, আর যে সব যুগ আসছে তখনও থাকবে না। 3তাদের আগে আগে গ্রাস করছে আগুন এবং তাদের পিছনে জ্বলছে আগুনের শিখা। তাদের সামনে দেশটা যেন এদন বাগান, আর তাদের পিছনে ধ্বংস হয়ে যাওয়া মরু-এলাকা; কিছুই তা থেকে রক্ষা পাচ্ছে না। 4তাদের আকার ঘোড়ার মত; ঘোড়ায় চড়া সৈন্যদের মত তারা ছুটে চলে। 5রথের শব্দের মত, নাড়া পোড়ানো আগুনের শব্দের মত তারা পাহাড়ের উপর দিয়ে লাফিয়ে আসে। তারা যুদ্ধের জন্য সারি বাঁধা একদল শক্তিশালী সৈন্যের মত। 6তাদের দেখে জাতিদের মনে দারুণ যন্ত্রণা হচ্ছে; সকলের মুখ ফ্যাকাশে হয়ে গেছে। 7সেই সৈন্যেরা বীর যোদ্ধাদের মত দৌড়ায়, সৈন্যদের মত দেয়ালে ওঠে। তারা সবাই সারি বেঁধে এগিয়ে যায়, তাদের পথ থেকে তারা সরে যায় না। 8তারা একে অন্যের উপর চাপাচাপি করে না; প্রত্যেকে সামনের দিকে এগিয়ে যায়। যে কোন বাধাই আসুক না কেন তারা সারি না ভেংগে এগিয়ে যেতে থাকে। 9তারা শহরের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে, দেয়ালের উপরে দৌড়ায়; তারা বাড়ী-ঘরে ওঠে, তারা চোরের মত জানলা দিয়ে ঢোকে। 10তাদের সামনে পৃথিবী কাঁপে, আকাশ কাঁপতে থাকে, চাঁদ ও সূর্য অন্ধকার হয়ে যায় এবং তারাগুলো আলো দেওয়া বন্ধ করে দেয়। 11সদাপ্রভু তাঁর সৈন্যদলের আগে আগে থেকে জোরে তাঁর গলার স্বর শোনান; তাঁর সৈন্যদলের সংখ্যা গোণা যায় না এবং যারা তাঁর আদেশ পালন করে তারা শক্তিশালী। সদাপ্রভুর দিন মহৎ ও ভয়ংকর; কে তা সহ্য করতে পারে? 12সদাপ্রভু ঘোষণা করছেন, “কিন্তু এখন তোমরা উপবাস, কান্নাকাটি ও দুঃখ প্রকাশ করে সমস্ত অন্তরের সংগে আমার কাছে ফিরে এস।” 13তোমাদের পোশাক না ছিঁড়ে অন্তর ছিঁড়ে ফেল। তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে ফিরে এস, কারণ তিনি দয়াময় ও মমতায় পূর্ণ; তিনি সহজে অসন্তুষ্ট হন না, তাঁর অটল ভালবাসার সীমা নেই এবং তিনি মন পরিবর্তন করে আর শাস্তি দেন না। 14কে জানে, হয়তো তিনি আবার মন পরিবর্তন করবেন এবং আশীর্বাদ রেখে যাবেন, যাতে তোমরা তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে শস্য ও ঢালন-উৎসর্গের অনুষ্ঠান করতে পার। 15তোমরা সিয়োনে তূরী বাজাও, পবিত্র উপবাসের ব্যবস্থা কর, একটা বিশেষ সভা ডাক; 16লোকদের জড়ো করে ঈশ্বরের উদ্দেশ্যে তাদের আলাদা কর; বৃদ্ধ নেতাদের এক জায়গায় ডাক, যারা বুকের দুধ খায় তাদের এবং ছেলেমেয়েদের জড়ো কর। বর ও কনে তাদের বাসর ঘর ছেড়ে আসুক। 17যারা সদাপ্রভুর সামনে সেবা-কাজ করে সেই পুরোহিতেরা উপাসনা-ঘরের বারান্দা ও বেদীর মাঝখানে কাঁদুক। তারা বলুক, “হে সদাপ্রভু, তোমার লোকদের উপর তুমি দয়া কর। তোমার সম্পত্তিকে টিট্‌কারির পাত্র কোরো না, জাতিদের মধ্যে তাদের নামকে টিট্‌কারির কথা হতে দিয়ো না। অন্যান্য জাতির লোকেরা কেন বলবে, ‘তাদের ঈশ্বর কোথায়?’ ” 18তখন সদাপ্রভু তাঁর দেশের জন্য আগ্রহী হবেন এবং তাঁর লোকদের প্রতি মমতা করবেন। 19সদাপ্রভু তাদের কথার উত্তর দিয়ে বলবেন, “আমি তোমাদের কাছে শস্য, নতুন আংগুর-রস ও তেল পাঠাচ্ছি, তাতে তোমরা পরিপূর্ণভাবে তৃপ্ত হবে; অন্যান্য জাতির কাছে আর কখনও আমি তোমাদের টিট্‌কারির পাত্র করব না। 20“আমি উত্তর দিক থেকে আসা সৈন্যদলকে তোমাদের কাছ থেকে দূর করে দেব; শুকনা ও ধ্বংস হয়ে যাওয়া মরু-এলাকায় তাদের তাড়িয়ে দেব। তাদের সামনের অংশ পূর্ব সমুদ্রে আর পিছনের অংশ পশ্চিম সমুদ্রে তাড়িয়ে দেব। তাদের দুর্গন্ধ উপরে উঠবে এবং তা থেকে পচা গন্ধ বের হবে, কারণ তাদের কাজ ছিল গর্বে ভরা।” 21হে দেশ, ভয় কোরো না; তুমি খুশী হও, আনন্দ কর, কারণ সদাপ্রভু মহৎ মহৎ কাজ করেছেন। 22ওহে মাঠের পশুরা, তোমরা ভয় কোরো না, কারণ চরে বেড়াবার মাঠ সবুজ হয়ে উঠেছে। গাছে গাছে ফল ধরেছে; ডুমুর গাছ ও আংগুর লতা প্রচুর ফল দিচ্ছে। 23হে সিয়োনের লোকেরা, খুশী হও, তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুকে নিয়ে আনন্দ কর, কারণ তাঁর সততার দরুন তিনি তোমাদের শরৎ কালের বৃষ্টি দিয়েছেন। তিনি তোমাদের প্রচুর বৃষ্টি পাঠিয়ে দিচ্ছেন, আগের মতই শরৎ ও বসন্তকালের বৃষ্টি দিচ্ছেন। 24খামারগুলো শস্যে ভরে যাবে; পাত্র থেকে আংগুর-রস আর তেল উপ্‌চে পড়বে। 25সদাপ্রভু বলছেন, “আমার বিরাট সৈন্যদল যা আমি তোমাদের মধ্যে পাঠিয়েছিলাম তারা, অর্থাৎ ঝাঁক-বাঁধা পংগপাল, ধ্বংসকারী পংগপাল, লাফিয়ে-চলা পংগপাল ও কামড়ানো পংগপাল যত বছর ধরে তোমাদের ফসল খেয়েছে তা আমি শোধ করে দেব। 26তোমরা পেট ভরে খেয়ে তৃপ্ত হবে এবং তোমরা তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর প্রশংসা করবে যিনি তোমাদের জন্য আশ্চর্য আশ্চর্য কাজ করেছেন; আমার লোকেরা আর কখনও লজ্জিত হবে না। 27তখন তোমরা জানতে পারবে যে, আমি ইস্রায়েলীয়দের মধ্যে আছি এবং আমিই তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু, অন্য কেউ নয়; আমার লোকেরা আর কখনও লজ্জিত হবে না। 28“তার পরে আমি সমস্ত লোকের উপরে আমার আত্মা ঢেলে দেব। তাতে তোমাদের ছেলেরা ও মেয়েরা নবী হিসাবে ঈশ্বরের বাক্য বলবে, তোমাদের বুড়ো লোকেরা স্বপ্ন দেখবে ও তোমাদের যুবকেরা দর্শন পাবে। 29এমন কি, সেই সময়ে আমার দাস ও দাসীদের উপরে আমি আমার আত্মা ঢেলে দেব। 30আমি আকাশে ও পৃৃথিবীতে আশ্চর্য আশ্চর্য ঘটনা দেখাব, অর্থাৎ রক্ত, আগুন ও প্রচুর ধূমা দেখাব। 31সদাপ্রভুর সেই মহৎ ও ভয়ংকর দিন আসবার আগে সূর্য অন্ধকার হয়ে যাবে ও চাঁদ রক্তের মত হবে। 32রক্ষা পাবার জন্য যে কেউ সদাপ্রভুকে ডাকবে সে রক্ষা পাবে, কারণ সদাপ্রভুর কথামত সিয়োন পাহাড়ে ও যিরূশালেমে কতগুলো লোক রক্ষা পাবে। ঈশ্বর যাদের বেছে নিয়েছেন তারা সেই রক্ষা পাওয়া লোকদের মধ্যে থাকবে।

will be added

X\