Job 36

1ইলীহূ আরও বললেন, 2“ঈশ্বরের পক্ষে আমার আরও কিছু বলবার আছে; আমার প্রতি আর একটু ধৈর্য ধরুন, আমি আপনাকে বুঝিয়ে দিচ্ছি। 3আমি অনেক দূর থেকে জ্ঞান লাভ করেছি; আমার সৃষ্টিকর্তা যে ন্যায়বান তা আমি প্রকাশ করব। 4আমি সত্যিই বলছি যে, আমার কথা মিথ্যা নয়; জ্ঞানে পরিপূর্ণ একজন আপনার সংগে আছে। 5“ঈশ্বর ক্ষমতাশালী, কিন্তু মানুষকে তুচ্ছ করেন না; তিনি শক্তিমান এবং তাঁর উদ্দেশ্য স্থির। 6তিনি দুষ্টদের বাঁচিয়ে রাখেন না কিন্তু যারা অত্যাচার ভোগ করে তাদের ন্যায়ভাবে বিচার করেন। 7তিনি নির্দোষ লোকদের থেকে তাঁর চোখ ফিরিয়ে নেন না; তিনি রাজাদের সংগে তাদের বসিয়ে দেন আর চিরদিনের জন্য তাদের সম্মানিত করেন। 8কিন্তু লোকেরা যদি পাপের জন্য শিকলে বাঁধা থাকে, বাঁধা থাকে যনণার দড়িতে, 9তবে তারা যা করেছে তা তিনি তাদের দেখিয়ে দেন, দেখিয়ে দেন যে, তারা গর্বের সংগে পাপ করেছে। 10তিনি তাদের সংশোধনের জন্য উপদেশ দেন আর মন্দ থেকে মন ফিরাতে আদেশ দেন। 11যদি তারা তাঁর বাধ্য হয়ে তাঁর সেবা করে, তবে তাদের বাকী জীবন তারা সফলতায় কাটায় আর বছরগুলো কাটায় সুখে। 12কিন্তু যদি তারা না শোনে, তবে মৃত্যুর আঘাতে তারা ধ্বংস হবে আর বুদ্ধিহীন অবস্থায় মারা যাবে। 13“ঈশ্বরের প্রতি ভক্তিহীন লোকেরা রাগ পুষে রাখে; তিনি বাঁধলেও তারা সাহায্যের জন্য ডাকে না। 14যৌবনেই তারা মারা যায়, মারা যায় মন্দিরের পুরুষ বেশ্যাদের মধ্যে। 15কিন্তু যারা কষ্ট ভোগ করে তাদের উদ্ধার করবার জন্য তিনি সেই কষ্ট ব্যবহার করেন, আর অত্যাচারের মধ্য দিয়ে তাদের শিক্ষা দেন। 16“কষ্টের হাত থেকে তিনি আপনাকে বের করে নিয়ে আসতে চান; তিনি আপনাকে এমন বড় জায়গায় নিয়ে যেতে চান যেখানে কোন বাধা নেই। সেখানে আপনার টেবিল ভাল ভাল খাবারে পূর্ণ থাকবে। 17কিন্তু এখন আপনি দুষ্টদের পাওনা শাস্তি পাচ্ছেন; আপনি শাস্তি ও ন্যায়বিচার ভোগ করছেন। 18সতর্ক থাকুন যেন আপনার রাগের দরুন আপনার ধন-সম্পদ আপনাকে ভুল পথে নিয়ে না যায়; যে বড় মাসুল আপনি দিয়েছেন তা যেন আপনাকে বিপথে না নেয়। 19আপনার ধন-সম্পদ কিম্বা আপনার সমস্ত ক্ষমতা কি আপনাকে দুঃখ-কষ্ট থেকে রক্ষা করতে পারে? 20আপনি সেই রাতের আশা করবেন না যে সময় লোকে মারা যায়। 21সাবধান হন, মন্দের দিকে ফিরবেন না, কারণ কষ্ট পাওয়ার চেয়ে মন্দই আপনার কাছে প্রিয়। 22“ঈশ্বর ক্ষমতায় মহান। তাঁর মত শিক্ষক আর কে আছে? 23কে তাঁকে সংশোধন করতে পারে কিম্বা তাঁকে বলতে পারে, ‘তুমি অন্যায় করেছ’? 24তাঁর কাজের প্রশংসা করতে ভুলবেন না; গানের মধ্য দিয়েই তো মানুষ তাঁর কাজের প্রশংসা করেছে। 25সমস্ত মানুষ তাঁর কাজ দেখেছে, কিন্তু তারা তা দূর থেকেই দেখেছে। 26ঈশ্বর যে কত মহান তা আমরা বুঝতেও পারি না। তাঁর বয়স কত তা জানতে পারা সম্ভব নয়। 27“তিনি জলের ফোঁটা টেনে নেন, সেগুলো বাষ্প হয় এবং বৃষ্টি হয়ে পড়ে। 28মেঘ তা ঢেলে দেয়, আর মানুষের উপর প্রচুর বৃষ্টি পড়ে। 29কে বুঝতে পারে তিনি কেমন করে মেঘ বিছিয়ে দেন? কিম্বা তাঁর বাসস্থান থেকে মেঘের গর্জন করেন? 30তিনি তাঁর চারপাশে বিদ্যুৎ ছড়িয়ে দেন আর সমুদ্রের তলা ঢেকে দেন। 31এই সব দ্বারা তিনি সমস্ত জাতিকে শাসন করেন আর প্রচুর পরিমাণে খাবার যোগান। 32তিনি তাঁর হাত দিয়ে বিদ্যুৎ ধরেন আর তাঁর লক্ষ্যবস্তুকে আঘাত করতে আদেশ দেন। 33তাঁর মেঘের গর্জন ঝড় আসবার খবর ঘোষণা করে; পশুর পালগুলোও ঝড় আসবার খবর জানায়।


Copyrighted Material
Learn More

will be added

X\