Jeremiah 42

1তারপর সৈন্যদলের সব সেনাপতিরা, কারেহের ছেলে যোহানন ও হোশয়িয়ের ছেলে যাসনিয় আর সমস্ত লোকেরা এসে নবী যিরমিয়কে বলল, “দয়া করে আপনি আমাদের মিনতি শুনুন এবং এই বাকী লোকদের জন্য আপনি আপনার ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে প্রার্থনা করুন। আপনি তো এখন দেখতেই পাচ্ছেন যদিও এক সময় আমরা অনেকজন ছিলাম এখন কেবল মাত্র কয়েকজন পড়ে রয়েছি। 3আপনার ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে প্রার্থনা করুন যাতে তিনি আমাদের বলে দেন আমরা কোথায় যাব আর কি করব।” 4উত্তরে নবী যিরমিয় বললেন, “আমি আপনাদের কথা শুনেছি। আমি আপনাদের অনুরোধ অনুসারে আপনাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে নিশ্চয়ই প্রার্থনা করব। সদাপ্রভু যা বলবেন তা সবই আপনাদের বলব, কিছুই আপনাদের কাছ থেকে গোপন করব না।” 5তখন তারা যিরমিয়কে বলল, “আপনার ঈশ্বর সদাপ্রভু আমাদের যা বলবার জন্য আপনাকে পাঠাবেন সেইমত যদি আমরা সব কিছু না করি তাহলে আমাদের বিরুদ্ধে সদাপ্রভুই যেন একজন সত্যিকার বিশ্বস্ত সাক্ষী হন। 6আমরা যাঁর কাছে আপনাকে পাঠাচ্ছি আমরা আমাদের সেই ঈশ্বর সদাপ্রভুর কথার বাধ্য হব- তা আমাদের পছন্দমত হোক বা না হোক। যদি আমরা আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর বাধ্য হই তবে আমাদের ভাল হবে।” 7এর দশ দিন পরে যিরমিয়ের কাছে সদাপ্রভুর বাক্য প্রকাশিত হল। 8তখন তিনি যোহাননকে ও তার সংগের সৈন্যদলের সব সেনাপতিদের এবং সমস্ত লোকদের ডেকে একত্র করলেন। 9তিনি তাদের বললেন, “আপনারা আপনাদের মিনতি জানাবার জন্য যাঁর কাছে আমাকে পাঠিয়েছিলেন সেই ইস্রায়েলের ঈশ্বর সদাপ্রভু বলছেন, 10‘তোমরা যদি দেশে থাক তবে আমি তোমাদের গড়ে তুলব, ভেংগে ফেলব না; আমি তোমাদের লাগিয়ে দেব, উপ্‌ড়ে ফেলব না, কারণ তোমাদের উপরে যে বিপদ এনেছি তার জন্য আমি মনে ব্যথা পেয়েছি। 11যাকে তোমরা ভয় করছ সেই বাবিলের রাজাকে তোমরা ভয় কোরো না, কারণ আমি তোমাদের সংগে সংগে আছি। আমি তোমাদের রক্ষা করব এবং তার হাত থেকে তোমাদের উদ্ধার করব। 12আমি তোমাদের প্রতি করুণা করব, তাতে সে-ও তোমাদের প্রতি করুণা করবে এবং তোমাদের নিজেদের জায়গায় আবার তোমাদের ফিরিয়ে আনবে।’ 13“কিন্তু যদি আপনারা বলেন, ‘আমরা দেশে থাকব না’ এবং এইভাবে আপনাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কথা অমান্য করেন, 14আর যদি আপনারা বলেন, ‘আমরা গিয়ে মিসরে বাস করব; সেখানে আমরা যুদ্ধও দেখব না, তূরীর আওয়াজও শুনব না, খাবারের অভাবে খিদেও বোধ করব না,’ 15তাহলে যিহূদার বাদবাকী লোকেরা সদাপ্রভুর বাক্য শুনুন। ইস্রায়েলের ঈশ্বর সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছেন, ‘তোমরা যদি মিসরে যাওয়াই ঠিক করে থাক আর সেখানে গিয়ে বাস কর, 16তবে যে যুদ্ধকে তোমরা ভয় করছ তা সেখানেই তোমাদের ধরে ফেলবে এবং যে দুর্ভিক্ষের ভয় করছ তা তোমাদের পিছন পিছন মিসরে যাবে এবং সেখানেই তোমরা মারা পড়বে। 17এই কথা সত্যি যে, যারা মিসরে গিয়ে বাস করবে বলে ঠিক করেছে তারা সবাই সেখানে যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ ও মড়কে মারা পড়বে; যে বিপদ আমি তাদের উপর আনব তা থেকে তাদের একজনও বেঁচে থাকতে পারবে না কিম্বা তা এড়াতেও পারবে না।’ 18ইস্রায়েলের ঈশ্বর সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছেন, ‘যারা যিরূশালেমে বাস করত তাদের উপরে যেমন করে আমার ভীষণ অসন্তোষ ও ক্রোধ ঢেলে পড়েছে তোমরা মিসরে গেলে তেমনি করে আমার ক্রোধ তোমাদের উপরেও ঢেলে পড়বে। তোমরা হবে ঠাট্টা-বিদ্রূপ ও ঘৃণার পাত্র; তোমাদের অবস্থা দেখে লোকে হতভম্ব হবে আর তোমাদের নাম নিয়ে লোকে অভিশাপ দেবে। তোমরা আর কখনও এই জায়গা দেখতে পাবে না।’ 19“হে যিহূদার বাদবাকী লোকেরা, সদাপ্রভু তো আপনাদের বলেছেন, ‘তোমরা মিসরে যেয়ো না।’ আপনারা জেনে রাখুন আমি আজ আপনাদের সাবধান করছি যে, 20আপনারা মারাত্মক ভুল করতে যাচ্ছেন। আপনারা আমাকে আপনাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে এই বলে পাঠিয়েছিলেন, ‘আপনি আমাদের জন্য আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে প্রার্থনা করুন; তিনি যা বলবেন তা সবই আপনি আমাদের বলবেন আর আমরা তা করব।’ 21আমি আজ তা আপনাদের বললাম কিন্তু যে সব বিষয় বলবার জন্য আপনাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু আমাকে আপনাদের কাছে পাঠিয়েছেন তা আপনারা এখনও পালন করেন নি। 22কাজেই এখন আপনারা জেনে রাখুন যে, আপনারা যে জায়গায় গিয়ে বাস করতে চান সেখানে আপনারা যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ ও মড়কে মারা পড়বেন।”

will be added

X\