Jeremiah 29

1বন্দীদের মধ্যে বেঁচে থাকা বৃদ্ধ নেতাদের, পুরোহিতদের ও নবীদের এবং অন্য যে সব লোকদের নবূখদ্‌নিৎসর যিরূশালেম থেকে বন্দী করে বাবিলে নিয়ে গিয়েছিলেন তাদের কাছে নবী যিরমিয় যিরূশালেম থেকে একটা চিঠি পাঠিয়েছিলেন। 2রাজা যিহোয়াখীন, তাঁর মা, রাজকর্মচারীরা, যিহূদা ও যিরূশালেমের নেতারা, কারিগর ও কর্মকারেরা বন্দী হয়ে যিরূশালেম থেকে যাবার পরে এই চিঠি লেখা হয়েছিল। 3শাফনের ছেলে ইলিয়াসা ও হিল্কিয়ের ছেলে গমরিয়কে যিহূদার রাজা সিদিকিয় রাজা নবূখদ্‌নিৎসরের কাছে পাঠিয়েছিলেন, আর তাদেরই হাতে যিরমিয় চিঠিখানা দিয়েছিলেন। তাতে লেখা ছিল: 4ইস্রায়েলের ঈশ্বর সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু যাদের বন্দী হিসাবে যিরূশালেম থেকে বাবিলে পাঠিয়েছেন তাদের সকলের কাছে বলছেন, 5“তোমরা ঘর-বাড়ী তৈরী করে বাস কর; বাগান করে তার ফল খাও। 6বিয়ে করে ছেলে ও মেয়ের জন্ম দাও; তোমাদের ছেলে ও মেয়েদের বিয়ে দাও যাতে তাদেরও ছেলেমেয়ে হয়। সেখানে তোমাদের সংখ্যা বাড়াবে, কমাবে না। 7এছাড়া যে শহরে আমি তোমাদের বন্দী হিসাবে নিয়ে গেছি সেখানকার মংগলের চেষ্টা কর। এর জন্য আমার কাছে প্রার্থনা কর, কারণ যদি সেই শহরের মংগল হয় তবে তোমাদেরও মংগল হবে। 8তোমাদের মধ্যেকার নবী ও গণকেরা যেন তোমাদের না ঠকায়। তারা যে সব স্বপ্ন দেখে তাতে তোমরা মনোযোগ দিয়ো না। 9তারা আমার নাম করে মিথ্যা কথা বলে। আমি সদাপ্রভু তাদের পাঠাই নি। 10“বাবিল সম্বন্ধে যে সত্তর বছরের কথা বলা হয়েছিল তা পূর্ণ হলে পর আমি তোমাদের দিকে মনোযোগ দেব; আমি যে মংগল করবার প্রতিজ্ঞা করেছিলাম তা পূর্ণ করব, অর্থাৎ তোমাদের এই জায়গায় ফিরিয়ে আনব। 11তোমাদের জন্য আমার পরিকল্পনার কথা আমিই জানি; তা তোমাদের মংগলের জন্য, ক্ষতির জন্য নয়। সেই পরিকল্পনার মধ্য দিয়ে তোমাদের ভবিষ্যতের আশা পূর্ণ হবে। 12তখন তোমরা আমাকে ডাকবে ও আমার কাছে এসে প্রার্থনা করবে, আর আমি তোমাদের কথা শুনব। 13যখন তোমরা আমাকে গভীরভাবে জানতে আগ্রহী হবে তখন আমাকে জানতে পারবে। 14তোমরা আমাকে জানতে পারবে, আর আমি তোমাদের বন্দীদশা থেকে ফিরিয়ে আনব। যে সব জাতি ও জায়গার মধ্যে আমি তোমাদের দূর করে দিয়েছি সেখান থেকে আমি তোমাদের জড়ো করব। যে জায়গা থেকে আমি তোমাদের বন্দী করে নিয়ে গেছি আমি সেখানেই তোমাদের ফিরিয়ে আনব। আমি সদাপ্রভু এই কথা বলছি।” 15আপনারা হয়তো বলবেন, “সদাপ্রভু বাবিলে আমাদের জন্য আমাদের মধ্য থেকে নবীদের তুলেছেন,” 16কিন্তু দায়ূদের সিংহাসনে বসা রাজার বিষয়ে এবং এই শহরের বাদবাকী সমস্ত লোকদের বিষয়ে, অর্থাৎ আপনাদের দেশের লোক যারা আপনাদের সংগে বন্দী হয়ে যায় নি তাদের সকলের বিষয়ে সদাপ্রভু বলছেন, 17“আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ ও মড়ক পাঠিয়ে দেব এবং আমি তাদের এমন খারাপ ডুমুরের মত করব যা পচা বলে খাওয়া যায় না। 18আমি যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ ও মড়ক নিয়ে তাদের পিছনে তাড়া করব এবং পৃথিবীর সমস্ত রাজ্যের কাছে তাদের ভয়ের পাত্র করে তুলব। যে সব জাতির মধ্যে আমি তাদের তাড়িয়ে দেব তাদের কাছে তাদের করে তুলব ঠাট্টা-বিদ্রূপ ও ঘৃণার পাত্র। তাদের অবস্থা দেখে লোকেরা হতভম্ব হবে ও তাদের নাম অভিশাপ হিসাবে ব্যবহার করবে। 19এর কারণ হল, যে কথা আমি বারে বারে আমার দাসদের, অর্থাৎ নবীদের দিয়ে তাদের কাছে বলে পাঠিয়েছি তা তারা শোনে নি। 20“সেইজন্য তোমরা বন্দীরা, যাদের আমি যিরূশালেম থেকে বাবিলে পাঠিয়ে দিয়েছি, তোমরা সবাই আমার কথা শোন। 21কোলায়ের ছেলে আহাব ও মাসেয়ের ছেলে সিদিকিয়, যারা আমার নাম করে তোমাদের কাছে মিথ্যা কথা বলছে তাদের সম্বন্ধে আমি ইস্রায়েলের ঈশ্বর সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছি যে, আমি বাবিলের রাজা নবূখদ্‌নিৎসরের হাতে তাদের তুলে দেব, আর সে তোমাদের চোখের সামনেই তাদের মেরে ফেলবে। 22বাবিলে থাকা যিহূদার সমস্ত বন্দীরা তাদের কথা মনে করে এই অভিশাপ ব্যবহার করবে, ‘সদাপ্রভু তোমাকে সিদিকিয় ও আহাবের মত করুন, যাদের বাবিলের রাজা আগুনে পুড়িয়েছিলেন,’ 23কারণ তারা ইস্রায়েলীয়দের মধ্যে জঘন্য কাজ করেছে; তারা প্রতিবেশীদের স্ত্রীদের সংগে ব্যভিচার করেছে এবং আমি তাদের যা বলতে বলি নি তারা আমার নাম করে সেই সব মিথ্যা কথা বলেছে। আমি তা জানি এবং আমি তার সাক্ষী। আমি সদাপ্রভু এই কথা বলছি।” 24সদাপ্রভু যিরমিয়কে নিহিলামীয় শময়িয়কে বলতে বললেন যে, 25ইস্রায়েলের ঈশ্বর সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছেন, “তুমি নিজের নামে যিরূশালেমের সব লোকদের কাছে, মাসেয়ের ছেলে পুরোহিত সফনিয়ের কাছে এবং অন্য সব পুরোহিতদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছ। 26তুমি সফনিয়কে লিখেছ, ‘সদাপ্রভু তোমাকে যিহোয়াদার জায়গায় পুরোহিত নিযুক্ত করেছেন যাতে সদাপ্রভুর ঘরের ভার তোমার উপর থাকে। কোন পাগল যদি নবীর মত কাজ করে তবে হাড়িকাঠ ও গলায় লোহার বেড়ী দিয়ে তাকে তোমার বন্ধ করা উচিত। 27কাজেই অনাথোতের যিরমিয় যখন তোমাদের কাছে নবীর মত কথা বলছে তখন তাকে তুমি শাস্তি দাও নি কেন? 28সে তো বাবিলে আমাদের কাছে এই খবর পাঠিয়েছে যে, অনেক দিন আমাদের এখানে থাকতে হবে। সেইজন্য আমরা যেন ঘর-বাড়ী তৈরী করে এখানে বাস করি এবং বাগান করে তার ফল ভোগ করি।’ ” 29পুরোহিত সফনিয় কিন্তু সেই চিঠিটা নবী যিরমিয়ের কাছে পড়লেন। 30তখন সদাপ্রভুর এই বাক্য যিরমিয়ের কাছে প্রকাশিত হল, 31“তুমি সমস্ত বন্দীদের কাছে এই খবর পাঠিয়ে দাও যে, নিহিলামীয় শময়িয়ের বিষয়ে সদাপ্রভু বলছেন, ‘আমি শময়িয়কে পাঠাই নি, তবুও সে তোমাদের কাছে নিজেকে নবী হিসাবে দেখিয়ে মিথ্যা কথায় তোমাদের বিশ্বাস করিয়েছে। 32আমি নিশ্চয়ই নিহিলামীয় শময়িয় ও তার বংশধরদের শাস্তি দেব। এই জাতির মধ্যে তার কেউ থাকবে না এবং আমি আমার লোকদের জন্য যে সব মংগল করব তা-ও সে দেখতে পাবে না, কারণ সে আমার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ প্রচার করেছে। আমি সদাপ্রভু এই কথা বলছি।’ ”

will be added

X\