Isaiah 26

1সেই দিন যিহূদা দেশে এই গানটা গাওয়া হবে: আমাদের একটা শক্ত শহর আছে; ঈশ্বরের দেওয়া উদ্ধার হবে তার দেয়াল ও রক্ষার ব্যবস্থা। 2তোমরা ফটক খুলে দাও যাতে সৎ ও বিশ্বস্ত সেই জাতি ঢুকতে পারে। 3যার মন তোমার উপর স্থির আছে তাকে তুমি পূর্ণ শান্তিতে রাখবে, কারণ সে তোমার উপর নির্ভর করে। 4তোমরা চিরদিনের জন্য সদাপ্রভুর উপর নির্ভর কর, কারণ সদাপ্রভু, সেই সদাপ্রভুই চিরস্থায়ী আশ্রয়-পাহাড়। 5যারা উঁচুতে বাস করে তাদের তিনি নীচুতে নামান; সেই উঁচু শহরকে তিনি ধ্বংস করে নীচু করেন। তিনি তা মাটিতে, এমন কি, ধুলায় মিশিয়ে দেন। 6অত্যাচারিত ও গরীবেরা তা পায়ে মাড়ায়। 7ঈশ্বরভক্ত লোকদের পথ সমান থাকে; হে ন্যায়বান, তুমি ঈশ্বরভক্তদের পথ সমান করে থাক। 8হ্যাঁ, সদাপ্রভু, আমরা তোমার ন্যায় পথে চলে তোমার জন্য অপেক্ষা করে আছি; আমরা চাই যেন তুমি তোমার কাজের মধ্য দিয়ে প্রকাশিত হও। 9রাতে আমার প্রাণ তোমার জন্য কাঁদে; আমার আত্মা তোমার জন্য আকুল হয়। পৃথিবীতে তোমার ন্যায়বিচার আসলে পর জগতের লোক সততা শিক্ষা পাবে। 10দুষ্টদের দয়া দেখানো হলেও তারা সততা শিক্ষা করে না; এমন কি, ন্যায়ের দেশেও তারা অন্যায় করতে থাকে আর সদাপ্রভুর গৌরব স্বীকার করে না। 11হে সদাপ্রভু, তোমার হাত তুমি উঁচুতে উঠিয়েছ, কিন্তু তারা তা দেখে না। তোমার লোকদের জন্য তোমার আগ্রহ তারা দেখুক এবং লজ্জিত হোক; আগুন তোমার শত্রুদের পুড়িয়ে ফেলুক। 12হে সদাপ্রভু, আমাদের জন্য তুমি শান্তি স্থাপন করবে; কারণ আমরা যা করতে পেরেছি তা সবই তুমি আমাদের জন্য করেছ। 13হে সদাপ্রভু, আমাদের ঈশ্বর, তুমি ছাড়া অন্য প্রভুরাও আমাদের উপর কর্তা হয়েছিল, কিন্তু কেবল তোমাকেই আমরা স্বীকার করি। 14তারা এখন মরে গেছে, আর বেঁচে নেই; তাদের আত্মাগুলো আর বেঁচে উঠবে না। তুমি তাদের শাস্তি দিয়ে ধ্বংস করে দিয়েছ; তাদের বিষয় তুমি একেবারে মুছে ফেলেছ। 15হে সদাপ্রভু, তুমি এই জাতিকে বড় করেছ; এই জাতিকে বড় করে তুমি গৌরব লাভ করেছ; তুমি দেশের সমস্ত সীমা বাড়িয়ে দিয়েছ। 16হে সদাপ্রভু, কষ্টের সময় তারা তোমাকে দেখেছিল; তোমার কাছ থেকে শাস্তি পাবার সময় তারা আকুল হয়ে ফিস্‌ ফিস্‌ করে প্রার্থনা জানিয়েছিল। 17গর্ভবতী স্ত্রীলোক প্রসবের সময় যেমন ব্যথায় মোচড়ায় ও চিৎকার করে, হে সদাপ্রভু, আমরাও তোমার সামনে তেমনই হয়েছি। 18আমরা গর্ভবতী হয়েছি, ব্যথায় মোচড় দিয়েছি, কিন্তু আমরা জন্ম দিয়েছি বাতাসের। আমাদের দ্বারা দেশ রক্ষা পায় নি, জগতের লোকও আমাদের দ্বারা জীবন পায় নি। 19কিন্তু তোমার মৃত লোকেরা বাঁচবে; তাদের দেহ বেঁচে উঠবে। তোমরা যারা ধুলায় বাস কর, তোমরা জাগো এবং আনন্দে চিৎকার কর। সকালের শিশির যেমন পৃথিবীকে সতেজ করে তেমনি তুমি মৃতদের জীবন দেবে। 20হে আমার লোকেরা, তোমরা যাও, তোমাদের কামরায় ঢুকে দরজা বন্ধ কর; তোমরা নিজেদের লুকিয়ে রাখ, কারণ অল্পক্ষণ পরে তাঁর ক্রোধ থেমে যাবে। 21দেখ, জগতের লোকদের পাপের শাস্তি দেবার জন্য সদাপ্রভু তাঁর বাসস্থান থেকে বেরিয়ে আসছেন। পৃথিবীর উপরে যে রক্তপাত হয়েছে তা প্রকাশ করা হবে; মেরে ফেলা তার লোকদের আর সে লুকিয়ে রাখবে না।

will be added

X\