ইবরানী 3

1সেইজন্য পবিত্র ভাইয়েরা, তোমরা যারা স্বর্গের অধিকারী হবার জন্য তাঁর ডাকে সাড়া দিয়েছ, তোমরা যীশুর বিষয়ে মনোযোগী হও। যাঁর উপর আমরা বিশ্বাস করেছি তিনিই ঈশ্বরের সেই পাঠানো লোক এবং সেই মহাপুরোহিত। 2ঈশ্বরের পরিবারের লোকদের দেখাশোনার কাজে মোশি যেমন বিশ্বস্ত ছিলেন তেমনি যীশুকে যিনি নিযুক্ত করেছিলেন সেই ঈশ্বরের কাছে তিনিও বিশ্বস্ত ছিলেন। 3যে লোক ঘর তৈরী করে সে যেমন সেই ঘরের চেয়ে বেশী সম্মান লাভ করে, সেই অনুসারে ঈশ্বর যীশুকে মোশির চেয়ে আরও বেশী গৌরব পাবার অধিকারী বলে মনে করলেন। 4প্রত্যেকটা ঘর কেউ না কেউ তৈরী করে থাকে, কিন্তু ঈশ্বরই সব কিছু তৈরী করেছেন। 5সত্যিই মোশি ঈশ্বরের পরিবারে সেবাকারী হিসাবে বিশ্বস্ত ছিলেন, যেন ভবিষ্যতে যা বলা হবে তার সম্বন্ধে তিনি সাক্ষ্য দিতে পারেন। 6কিন্তু খ্রীষ্ট সেই পরিবারের ভার-পাওয়া পুত্র হিসাবে বিশ্বস্ত ছিলেন। আমাদের নিশ্চিত আশার ফলে মনে যে সাহস ও আনন্দ আসে, তাতে যদি আমরা শেষ পর্যন্ত স্থির থাকি তবে দেখা যাবে যে, আমরাই ঈশ্বরের পরিবারের লোক। 7সেইজন্য পবিত্র আত্মা বলেছিলেন, “আহা, আজ যদি তোমরা তাঁর কথায় কান দাও! 8তিনি বলছেন, তোমাদের পূর্বপুরুষদের মত তোমাদের অন্তর তোমরা কঠিন কোরো না। তারা মরু-এলাকার মধ্যে বিদ্রোহী হয়ে আমার পরীক্ষা করেছিল। 9তোমাদের পূর্বপুরুষেরা সেখানে আমাকে যাচাই করেছিল, আর চল্লিশ বছর ধরে সেই সময়কার লোকেরা আমার কাজ দেখেছিল। 10আমি তাদের উপর খুব বিরক্ত হয়ে বলেছিলাম, ‘এই লোকদের অন্তর বিপথে ঘুরে বেড়াচ্ছে; তারা আমার পথ জানল না।’ 11সেইজন্য আমি ক্রোধে শপথ করে বলেছিলাম, ‘আমার দেওয়া বিশ্রামের জায়গায় তারা যেতে পারবে না।’ ” 12ভাইয়েরা, সাবধান! তোমাদের মধ্যে কারও মন যেন মন্দ ও অবিশ্বাসী না হয়। এই রকম মন জীবন্ত ঈশ্বরের কাছ থেকে দূরে সরে যায়। 13এর চেয়ে যতদিন পবিত্র শাস্ত্রের “আজ” কথাটা বলা যায়, তার প্রত্যেক দিনই তোমরা একে অন্যকে উৎসাহ দাও, যাতে তোমাদের কারও মন পাপের ছলনায় পড়ে কঠিন না হয়; 14কারণ প্রথমে যে নিশ্চয়তা আমাদের ছিল, যদি আমরা তাতে শেষ পর্যন্ত স্থির থাকি তবে দেখা যাবে যে, আমরা খ্রীষ্টের সংগে অংশীদার হয়েছি। 15একটু আগে বলা হয়েছে, আহা, আজ যদি তোমরা তাঁর কথায় কান দাও! তিনি বলেছেন, “তোমাদের পূর্বপুরুষদের মত তোমাদের অন্তর তোমরা কঠিন কোরো না।” 16কারা ঈশ্বরের কথা শুনেও তাঁকে বিরক্ত করেছিল? তারা কি সেই সব লোক নয় যাদের মোশি মিসর দেশ থেকে বের করে এনেছিলেন? 17আর চল্লিশ বছর ধরে ঈশ্বর কাদের উপর বিরক্ত ছিলেন? তারা কি সেই সব লোক নয় যারা পাপ করেছিল এবং যাদের মৃতদেহ মরু-এলাকায় পড়ে ছিল? 18আর কাদের কাছেই বা ঈশ্বর শপথ করে বলেছিলেন যে, তারা তাঁর দেওয়া বিশ্রামের জায়গায় যেতে পারবে না? তারা কি সেই সব লোক নয় যারা তাঁকে অবিশ্বাস করে অমান্য করেছিল? 19এতে দেখা যায় যে, তাদের অবিশ্বাসের জন্যই তারা ঈশ্বরের দেওয়া বিশ্রামের জায়গায় যেতে পারে নি।

will be added

X\