Haggai 2

1পরে সপ্তম মাসের একুশ দিনের দিন সদাপ্রভু নবী হগয়কে বললেন, 2“তুমি শল্টীয়েলের ছেলে যিহূদার শাসনকর্তা সরুব্বাবিলকে, যিহোষাদকের ছেলে মহাপুরোহিত যিহোশূয়কে এবং বাকী সব লোকদের জিজ্ঞাসা কর, 3‘আপনাদের মধ্যে এমন কে আছেন যিনি এই ঘরকে তার আগেকার জাঁকজমকের অবস্থায় দেখেছেন? আর এখন সেটি কেমন দেখছেন? আপনাদের কাছে কি মনে হচ্ছে না যে, আগেকার তুলনায় এটি কিছুই নয়?’ 4তারপর তুমি তাদের বলবে যে, সদাপ্রভু বলছেন, ‘হে সরুব্বাবিল, তুমি সাহস কর; হে মহাপুরোহিত যিহোশূয়, সাহস কর; হে দেশের সমস্ত লোক, তোমরা সাহস কর ও কাজ কর; কারণ আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু তোমাদের সংগে সংগে আছি। 5তোমরা যখন মিসর দেশ থেকে বের হয়ে এসেছিলে তখন তোমাদের কাছে আমি এই প্রতিজ্ঞাই করেছিলাম, আর আমার আত্মা এখনও তোমাদের মধ্যে আছেন। তোমরা ভয় কোরো না। 6“‘আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছি যে, আর অল্পকাল পরে আমি আর একবার আকাশ, পৃথিবী, সাগর ও ভূমিকে নাড়া দেব। 7আমি সমস্ত জাতিদের নাড়া দেব আর তাতে তারা তাদের ধন-সম্পদ এখানে নিয়ে আসবে। তখন আমি এই ঘর জাঁকজমকে পূর্ণ করব। 8রূপাও আমার, সোনাও আমার। 9আগেকার ঘরের জাঁকজমকের চেয়ে এখনকার ঘরের জাঁকজমক আরও বেশী হবে। এই জায়গায় আমি মংগল নিয়ে আসব। আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু এই কথা বলছি।’ ” 10দারিয়াবসের রাজত্বের দ্বিতীয় বছরের নবম মাসের চব্বিশ দিনের দিন সদাপ্রভু নবী হগয়কে বললেন, 11“আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু বলছি, আইন-কানুন সম্বন্ধে তুমি পুরোহিতদের এই কথা জিজ্ঞাসা কর, 12‘কোন লোক যদি তার পোশাকের ভাঁজে পবিত্র মাংস বহন করে আর সেই কাপড়ের ছোঁয়া কোন রুটি, সিদ্ধ করা খাবার, আংগুর-রস, তেল কিম্বা অন্য কোন খাবারে লাগে তবে তা কি পবিত্র হয়ে যায়?’ ” হগয়ের প্রশ্নের উত্তরে পুরোহিতেরা বললেন, “না, হয় না।” 13তখন হগয় বললেন, “মৃতদেহের ছোঁয়া লেগে অশুচি হয়েছে এমন কোন লোক যদি এর কোন একটা ছোঁয়, তবে সেই জিনিস কি অশুচি হয়ে যাবে?” পুরোহিতেরা উত্তর দিলেন, “হ্যাঁ, সেটা অশুচি হয়ে যাবে।” 14তখন হগয় বললেন, “সদাপ্রভু বলছেন, ‘ঠিক সেইভাবে আমার চোখে এই লোকেরা ও এই জাতি অশুচি। সেইজন্য তারা যা কিছু করে এবং যা কিছু উৎসর্গ করে তা-ও অশুচি। 15এখন থেকে তোমরা এই বিষয় নিয়ে ভাল করে চিন্তা কর যে, আমার ঘরে যখন একটা পাথরের উপরে আর একটা পাথর ছিল না তখন কি অবস্থা ছিল। 16কেউ যখন বিশ মণ শস্যের স্তূপের কাছে আসত তখন সেখানে পেত মাত্র দশ মণ। যখন কেউ পঞ্চাশ লিটার আংগুর-রস নেবার জন্য আংগুর-রস রাখা জালার কাছে যেত তখন সেখানে থাকত মাত্র বিশ লিটার। 17আমি শস্যের শুকিয়ে যাওয়া ও ছাৎলা পড়া রোগ আর শিলাবৃষ্টি দিয়ে তোমাদের হাতের সমস্ত কাজকে আঘাত করেছিলাম, কিন্তু তবুও তোমরা আমার দিকে ফেরো নি। 18আজ নবম মাসের চব্বিশ দিনের দিন আমার ঘরের ভিত্তি স্থাপন করা হল। এবার আমি তোমাদের জন্য কি করতে যাচ্ছি তা দেখ। 19এখন অবশ্য তোমাদের গোলাঘরে কোন বীজ নেই এবং এতদিন আংগুর, ডুমুর, ডালিম ও জলপাই গাছে কম ফল ধরেছে, কিন্তু আজ থেকে আমি তোমাদের আশীর্বাদ করব।’ ” 20সেই একই দিনে সদাপ্রভু হগয়কে আবার বললেন, 21“তুমি যিহূদার শাসনকর্তা সরুব্বাবিলকে বল, ‘আমি আকাশ ও পৃথিবীকে নাড়া দেব। 22আমি বিভিন্ন জাতির রাজাদের সিংহাসন উল্টে ফেলব এবং তাদের ক্ষমতা ধ্বংস করে দেব। আমি রথ ও তার চালকদের উল্টে ফেলে দেব; ঘোড়া ও ঘোড়সওয়ারেরা প্রত্যেকে তার ভাইয়ের তলোয়ারের ঘায়ে মারা পড়বে। 23হে শল্টীয়েলের ছেলে আমার দাস সরুব্বাবিল, আমি সদাপ্রভু সেই দিন তোমাকে নিয়ে আমার সীলমোহরের আংটির মত করব, কারণ আমি তোমাকে বেছে নিয়েছি।’ আমি সর্বক্ষমতার অধিকারী সদাপ্রভু এই কথা বলছি।”

will be added

X\