Genesis 33

1পথ চলতে চলতে যাকোব দেখলেন যে, এষৌ চারশো লোক সংগে নিয়ে তাঁর দিকে এগিয়ে আসছেন। তিনি তখন লেয়া, রাহেল আর সেই দুই দাসীর মধ্যে সন্তানদের ভাগ করে দিলেন। 2দাসী ও তাদের সন্তানদের তিনি প্রথমে রাখলেন। তারপর রাখলেন লেয়া ও তাঁর সন্তানদের এবং শেষে রাখলেন রাহেল ও যোষেফকে। 3কিন্তু তিনি নিজে তাঁদের আগে আগে গেলেন। যেতে যেতে তিনি মাটিতে মাথা ঠেকিয়ে সাতবার ভাইকে প্রণাম করলেন এবং এইভাবে তাঁর কাছে গিয়ে উপস্থিত হলেন। 4তখন এষৌ তাঁর কাছে দৌড়ে এসে তাঁকে জড়িয়ে ধরে তাঁর কাঁধে মাথা রাখলেন এবং তাঁকে চুম্বন করলেন। তারপর তাঁরা দু’জনেই কাঁদতে লাগলেন। 5পরে এষৌ মুখ তুলে ঐ সব স্ত্রীলোক ও ছেলেমেয়েদের দেখে জিজ্ঞাসা করলেন, “তোমার সংগে এরা কারা?” যাকোব বললেন, “ঈশ্বর দয়া করে আপনার দাসকে এই সব ছেলেমেয়ে দিয়েছেন।” 6প্রথমে দাসীরা তাদের সন্তানদের নিয়ে এগিয়ে গিয়ে এষৌকে প্রণাম করল। 7তারপর লেয়া তাঁর সন্তানদের নিয়ে এগিয়ে গিয়ে তাঁকে প্রণাম করলেন। শেষে রাহেল আর যোষেফ এগিয়ে গিয়ে তাঁকে প্রণাম করলেন। 8তখন এষৌ বললেন, “যে সব দলবলের সংগে পথে আমার দেখা হল সেগুলো কিসের জন্য?” যাকোব বললেন, “ওগুলো আমার মনিবের কাছ থেকে দয়া পাবার জন্য।” 9কিন্তু এষৌ বললেন, “ভাই, আমার যথেষ্ট আছে। তোমার যা আছে তা তোমারই থাক্‌।” 10যাকোব বললেন, “না, না, আমি আপনাকে মিনতি করে বলছি, যদি আমার উপর আপনার দয়া থাকে তবে আমার দেওয়া এই উপহার আপনি নিন। যখন আপনি আমাকে খুশী মনে গ্রহণই করেছেন তখন আমার কাছে আপনার মুখ দেখা ঈশ্বরের মুখ দেখার মতই। 11ঈশ্বর আমার প্রতি দয়া করেছেন, আর আমার যথেষ্ট আছে। সেইজন্য এই যে উপহার আপনার কাছে আনা হয়েছে তা আপনি নিন।” যাকোব এইভাবে সাধাসাধি করবার পর এষৌ তা গ্রহণ করলেন। 12পরে এষৌ বললেন, “চল, এবার আমরা যাই। আমি তোমার সংগে সংগেই যাব।” 13যাকোব তাঁকে বললেন, “কিন্তু প্রভু, আপনি তো জানেন যে, এই সব ছেলেমেয়েদের বয়স বেশী নয়। তা ছাড়া যে সব গরু ও ভেড়া তাদের বাচ্চাকে দুধ দিচ্ছে তাদের কথাও আমাকে ভাবতে হবে। যদি একদিনও এদের তাড়াহুড়া করে নিয়ে যাওয়া হয় তবে সবগুলোই মরে যাবে। 14না প্রভু, তার চেয়ে বরং আপনি আমার আগে আগেই যান। সেয়ীরে আপনার কাছে গিয়ে না পৌঁছানো পর্যন্ত সামনের পশুপাল এবং ছেলেমেয়েদের চলবার ক্ষমতা বুঝে আমাকে ধীরেসুস্থেই চলতে হবে।” 15তখন এষৌ বললেন, “তাহলে আমার সংগের কয়েকজন লোককে আমি তোমার কাছে রেখে যাই।” যাকোব বললেন, “তার কি দরকার? আমার মনিবের কাছ থেকে আমি দয়া পেয়েছি সেটাই তো যথেষ্ট।” 16কাজেই এষৌ সেই দিনই সেয়ীরের পথে রওনা হয়ে গেলেন, 17আর যাকোব যাত্রা করে সুক্কোতে গিয়ে পৌঁছালেন। তিনি নিজের জন্য সেখানে একটা ঘর তৈরী করলেন এবং তাঁর পশুপালের জন্য কয়েকটা কুঁড়ে-ঘর তৈরী করলেন। এইজন্যই সেই জায়গাটার নাম হয়েছিল সুক্কোৎ (যার মানে “কুঁড়ে-ঘর”)। 18পদ্দন-অরাম থেকে বের হয়ে আসবার পর যাকোব নিরাপদে কনান দেশের শিখিম শহরে গিয়ে উপস্থিত হলেন। তিনি শহরের বাইরে তাম্বু ফেললেন এবং সেই জমিটুকু পরে শিখিমের বাবা হমোরের ছেলেদের কাছ থেকে একশো কসীতা দিয়ে কিনে নিলেন। 20সেখানে তিনি একটা বেদী তৈরী করে তার নাম দিলেন এল্‌-ইলোহে-ইস্রায়েল (যার মানে “ইস্রায়েলের ঈশ্বরই ঈশ্বর”)।

will be added

X\