Genesis 23

1একশো সাতাশ বছর বেঁচে থাকবার পর সারা কনান দেশের কিরিয়ৎ-অর্ব শহরে মারা গেলেন। এই শহরটাকে এখন হিব্রোণ বলা হয়। সারা মারা যাবার পর অব্রাহাম সারার জন্য কাঁদতে ও শোক করতে গেলেন। 3পরে তিনি তাঁর মৃতা স্ত্রীর পাশ থেকে উঠে গিয়ে সেখানকার হিত্তীয়দের বললেন, 4“আমি অন্য দেশ থেকে এসে বিদেশী হিসাবে আপনাদের মধ্যে বাস করছি। সেইজন্য দয়া করে কবরস্থান করবার জন্য আমাকে আপনাদের মধ্যে একটু জায়গা ছেড়ে দিন যেন সেখানে আমি আমার মৃতা স্ত্রীকে কবর দিতে পারি।” 5এর উত্তরে হিত্তীয়েরা বলল, 6“দেখুন, আপনি আমাদের কথা শুনুন। আপনি এখানে আমাদের মধ্যে ঈশ্বরের নিযুক্ত একজন নেতা হয়ে আছেন। আমাদের সবচেয়ে ভাল কবরটাতেই আপনি আপনার মৃতা স্ত্রীর কবর দিন। আপনার স্ত্রীকে কবর দেবার জন্য আমাদের মধ্যে কেউই তার নিজের কবর ছেড়ে দিতে আপত্তি করবে না।” 7তখন অব্রাহাম উঠে দাঁড়ালেন এবং সেই এলাকার হিত্তীয় বাসিন্দাদের সামনে মাটিতে মাথা ঠেকালেন। 8তারপর তিনি বললেন, “আমার স্ত্রীর এখানে কবর হওয়াতে যদি আপনাদের কোন আপত্তি না থাকে তবে দয়া করে আপনারা আমার একটা কথা শুনুন। আপনারা আমার হয়ে সোহরের ছেলে ইফ্রোণকে এই অনুরোধ করুন যেন তাঁর জমির শেষ সীমানায় মক্‌পেলাতে যে গুহাটা আছে তা তিনি আমাকে ছেড়ে দেন। আপনাদের সামনে তিনি যেন পুরো দামেই কবরস্থান করবার জন্য ওটা আমার কাছে বিক্রি করেন।” 10অন্যান্য হিত্তীয়দের সংগে ইফ্রোণও সেখানে বসে ছিলেন। অব্রাহামের কথার উত্তরে সেই হিত্তীয় ইফ্রোণ বললেন, “না, না, আপনি বরং দয়া করে আমার কথাটা শুনুন। আমার বংশের লোকদের সামনে ঐ জমি ও তার মধ্যেকার গুহাটা আমি আপনাকে এমনিই দিচ্ছি; আপনার মৃতা স্ত্রীকে আপনি ওখানে কবর দিন।” তখন যে হিত্তীয়েরা শহরের ফটকের কাছে ছিল তারাও ইফ্রোণের এই কথাটা শুনল। 12অব্রাহাম আবার মাটিতে মাথা ঠেকিয়ে তাদের সম্মান দেখালেন। 13তারপর সবাই যাতে শুনতে পায় সেইভাবে তিনি ইফ্রোণকে বললেন, “আপত্তি না থাকলে আপনি দয়া করে আমার কথা শুনুন। জমিটা আমি দাম দিয়ে নিতে চাই। দয়া করে আপনি জমির দামটা গ্রহণ করুন যাতে আমি ওখানে আমার মৃতা স্ত্রীকে কবর দিতে পারি।” 14উত্তরে ইফ্রোণ অব্রাহামকে বললেন, 15“আপনি আমার কথা শুনুন। ঐ জমিটার দাম হল চার কেজি আটশো গ্রাম রূপা, কিন্তু আমার বা আপনার কাছে ওটা তেমন কিছু নয়। আপনি বরং গিয়ে ওখানেই আপনার মৃতা স্ত্রীকে কবর দিন।” 16ইফ্রোণের কথা শুনে অব্রাহাম ব্যবসায়ীদের মাপ অনুসারে চার কেজি আটশো গ্রাম রূপা তাঁকে মেপে দিলেন। ইফ্রোণ হিত্তীয়দের সামনে এই চার কেজি আটশো গ্রাম রূপার কথাই বলেছিলেন। 17মম্রি শহরের কাছে মক্‌পেলায় ইফ্রোণের যে জমিটা ছিল সেই জমি ও তার গুহা এবং জমির চারদিকের গাছপালা তিনি অব্রাহামের কাছে সম্পত্তি হিসাবে বিক্রি করে দিয়েছিলেন। যে হিত্তীয়েরা শহরের ফটকের কাছে ছিল তাদের সামনেই তিনি তা করলেন। 19এর পরে অব্রাহাম কনান দেশের মম্রি শহরের কাছে, অর্থাৎ হিব্রোণের কাছে মক্‌পেলার গুহাতে তাঁর স্ত্রী সারাকে কবর দিলেন। 20এমনি করে মক্‌পেলার ঐ গুহা সুদ্ধ জমিটা কবরস্থান হিসাবে হিত্তীয়দের হাত থেকে অব্রাহামের হাতে আসল।

will be added

X\