Exodus 11

1তখন সদাপ্রভু মোশিকে বললেন, “আমি ফরৌণ ও মিসর দেশকে আর একটা আঘাত দেব। তার পরে ফরৌণ এখান থেকে তোমাদের যেতে দেবে। তবে সে যখন তোমাদের যেতে দেবে তখন এখান থেকে তোমাদের সে একেবারে তাড়িয়েই বিদায় করবে। 2তুমি ইস্রায়েলীয়দের বলবে, স্ত্রী-পুরুষ সকলেই যেন তাদের প্রতিবেশীদের কাছ থেকে সোনা ও রূপার জিনিস চেয়ে নেয়।” 3এদিকে সদাপ্রভু ইস্রায়েলীয়দের প্রতি মিসরীয়দের মনে একটা দয়ার ভাব জাগিয়ে দিলেন। এছাড়া মোশিও ফরৌণের কর্মচারীদের ও মিসরের লোকদের চোখে একজন মহান লোক ছিলেন। 4মোশি ফরৌণকে বললেন, “সদাপ্রভু বলছেন, তিনি মাঝরাতে মিসর দেশের মধ্য দিয়ে যাবেন। 5তাতে মিসর দেশের সব পরিবারের প্রথম ছেলে মারা যাবে। সিংহাসনের অধিকারী ফরৌণের প্রথম ছেলে থেকে শুরু করে জাঁতা ঘুরানো দাসীর প্রথম ছেলে পর্যন্ত কেউ বাদ যাবে না। এছাড়া পশুদেরও প্রথম পুরুষ বাচ্চা মরে যাবে। 6এতে গোটা মিসর দেশে এমন কান্নার রোল উঠবে যা আগে কখনও ওঠে নি এবং আর কখনও উঠবেও না। 7কিন্তু ইস্রায়েলীয়দের মধ্যে একটা কুকুরের ডাক পর্যন্ত শোনা যাবে না, তা মানুষ দেখেই হোক বা পশু দেখেই হোক। এতে আপনারা জানতে পারবেন যে, সদাপ্রভু মিসরীয় এবং ইস্রায়েলীয়দের আলাদা করে দেখেন। 8আপনার এই সব কর্মচারী এসে আমার সামনে হাঁটু পেতে বলবে, ‘আপনি আপনার সব লোকজন নিয়ে বের হয়ে যান!’ তারপর আমি চলে যাব।” এই কথা বলে মোশি রেগে আগুন হয়ে ফরৌণের কাছ থেকে চলে গেলেন। 9সদাপ্রভু মোশিকে বলেছিলেন, “মিসর দেশে আমার আশ্চর্য কাজের সংখ্যা যেন বেড়ে যায় সেইজন্যই ফরৌণ তোমার কথা শুনবে না।” 10এই সব আশ্চর্য কাজ মোশি ও হারোণ ফরৌণের সামনে করলেন, কিন্তু সদাপ্রভু ফরৌণের মন কঠিন করলেন বলে তিনি তাঁর দেশ থেকে ইস্রায়েলীয়দের যেতে দিলেন না।

will be added

X\