ইফিষীয় 2

1অবাধ্যতা আর পাপের দরুন তোমরা মৃত ছিলে। 2জগতের চিন্তাধারা অনুসারে তোমরাও এক সময় সেই অবাধ্যতা আর পাপের মধ্যে চলাফেরা করতে। যে আত্মা আকাশের ক্ষমতাশালীদের রাজা সেই দুষ্ট আত্মা ঈশ্বরের অবাধ্য লোকদের মধ্যে কাজ করছে, আর তোমরা সেই আত্মার পিছনে পিছনে চলতে। 3আমরা সবাই আমাদের পাপ-স্বভাবের কামনা পূর্ণ করে সেই লোকদের মধ্যে এক সময় জীবন কাটাতাম। পাপ-স্বভাব থেকে যে সব ইচ্ছা এবং চিন্তা জাগে আমরা সেই অনুসারে কাজ করতাম। এই স্বভাবের জন্য আমরাও অন্য সকলের মত ঈশ্বরের কাছ থেকে শাস্তি পাবার যোগ্য ছিলাম। 4কিন্তু ঈশ্বর করুণায় পূর্ণ; তিনি আমাদের খুব ভালবাসেন। 5এইজন্য অবাধ্যতার দরুন যখন আমরা মৃত অবস্থায় ছিলাম তখন খ্রীষ্টের সংগে তিনি আমাদের জীবিত করলেন। ঈশ্বরের দয়ায় তোমরা পাপ থেকে উদ্ধার পেয়েছ। 6আমরা খ্রীষ্ট যীশুর সংগে যুক্ত হয়েছি বলে ঈশ্বর আমাদের খ্রীষ্টের সংগে জীবিত করে খ্রীষ্টের সংগেই স্বর্গে বসিয়েছেন। 7তিনি এই কাজ করেছেন যেন তিনি তাঁর তুলনাহীন অশেষ দয়া আগামী যুগ যুগ ধরে দেখাতে পারেন। তিনি খ্রীষ্ট যীশুর মধ্য দিয়ে আমাদের উপর দয়া করে যা করেছেন তাতেই তাঁর এই দয়া প্রকাশ পেয়েছে। 8ঈশ্বরের দয়ায় বিশ্বাসের মধ্য দিয়ে তোমরা পাপ থেকে উদ্ধার পেয়েছ। এটা তোমাদের নিজেদের দ্বারা হয় নি, তা ঈশ্বরেরই দান। 9এটা কাজের ফল হিসাবে দেওয়া হয় নি, যেন কেউ গর্ব করতে না পারে। 10আমরা ঈশ্বরের হাতের তৈরী। ঈশ্বর খ্রীষ্ট যীশুর সংগে যুক্ত করে আমাদের নতুন করে সৃষ্টি করেছেন যাতে আমরা সৎ কাজ করি। এই সৎ কাজ তিনি আগেই ঠিক করে রেখেছিলেন, যেন আমরা তা করে জীবন কাটাই। 11জন্মের দিক থেকে তোমরা তো অযিহূদী। হাত দিয়ে দেহের মধ্যে যাদের সুন্নত করানো হয়েছে, অর্থাৎ যারা নিজেদের সুন্নত-করানো লোক বলে থাকে তারা তোমাদের সুন্নত-না-করানো লোক বলে। 12মনে রেখো, আগে তোমরা খ্রীষ্টের কাছ থেকে আলাদা ছিলে; জাতি হিসাবে ইস্রায়েলীয়দের যে অধিকার তোমরা সেই অধিকারের বাইরে ছিলে; ঈশ্বর ইস্রায়েল জাতির জন্য যে কয়টি প্রতিজ্ঞাযুক্ত ব্যবস্থা করেছিলেন তার সংগে তোমাদের কোন সম্বন্ধ ছিল না; তোমাদের কোন আশা ছিল না; আর এই জগতে তোমরা ঈশ্বর ছাড়াই ছিলে। 13তোমরা এক কালে দূরে ছিলে, কিন্তু খ্রীষ্ট যীশুর সংগে যুক্ত হয়েছ বলে তোমাদের এখন তাঁর রক্তের দ্বারা কাছে আনা হয়েছে। 14তিনিই আমাদের শান্তি। যিহূদী ও অযিহূদী, এই দুইকে তিনিই এক করেছেন। তিনি তাঁর ক্রুশে দেওয়া দেহের মধ্য দিয়ে সমস্ত আদেশ ও নিয়ম সুদ্ধ মোশির আইন-কানুনের শক্তিকে বাতিল করেছেন। এইভাবেই যে শত্রুতার ভাব এই দু’য়ের মধ্যে দেওয়ালের মত হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল তা তিনি ভেংগে ফেলেছেন। তিনি এটা করেছিলেন যেন এই দু’টিকে দিয়ে তিনি নিজেই একটি নতুন মানুষ সৃষ্টি করতে পারেন, আর এইভাবেই যেন সেই দু’য়ের মধ্যে শান্তি হয়। 16এটাও তাঁর উদ্দেশ্য ছিল যে, তাঁর ক্রুশীয় মৃত্যুর মধ্য দিয়ে সেই দু’টিকে তিনি এক দেহে ঈশ্বরের সংগে আবার মিলিত করেন, কারণ এই দু’য়ের মধ্যে যে শত্রুতার ভাব ছিল তা তিনি তাঁর ক্রুশীয় মৃত্যুর দ্বারা ধ্বংস করেছেন। 17তোমরা যারা দূরে ছিলে এবং তারা যারা কাছে ছিল, সকলের কাছেই তিনি এসে শান্তির সুখবর প্রচার করেছিলেন। 18তাঁরই মধ্য দিয়ে একই পবিত্র আত্মার দ্বারা পিতার কাছে যাবার অধিকার আমাদের সকলের আছে। 19এইজন্য তোমরা আর অচেনাও নও, বিদেশীও নও; কিন্তু ঈশ্বরের লোকদের সংগে তোমরাও তাঁর রাজ্যের ও তাঁর পরিবারের লোক হয়েছ। 20প্রেরিত্‌ আর নবীরা হলেন ভিত্তি, আর সেই ভিত্তির প্রধান পাথর খ্রীষ্ট যীশু নিজে। সেই ভিত্তির উপরেই তোমাদের গাঁথা হয়েছে। 21খ্রীষ্টের সংগে যোগ থাকবার দরুন দালানের সমস্ত অংশ একসংগে যুক্ত হয়ে প্রভুর থাকবার জন্য একটা পবিত্র ঘর গড়ে উঠছে। 22তোমরা তাঁরই সংগে যুক্ত হয়েছ এবং সেইজন্য তোমাদেরও একসংগে গেঁথে তোলা হচ্ছে, যেন পবিত্র আত্মার মধ্য দিয়ে তোমরা ঈশ্বরের থাকবার জায়গা হতে পার।

will be added

X\