Deuteronomy 30

1“আমি তোমাদের সামনে যে আশীর্বাদ ও অভিশাপ তুলে ধরলাম তা সবই তোমাদের উপর আসবে। তারপর তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু যে সব জাতির মধ্যে তোমাদের ছড়িয়ে দেবেন তাদের মধ্যে বাস করবার সময় এই সব কথায় তোমরা মন দেবে। 2সেই সময় যখন তোমরা ও তোমাদের সন্তানেরা তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে ফিরে আসবে এবং আজ আমি তোমাদের যে সব আদেশ দিচ্ছি তা পালন করে মনে-প্রাণে তাঁর ইচ্ছামত চলবে, 3তখন সদাপ্রভু বন্দীদশা থেকে মুক্ত করে তোমাদের ফিরিয়ে আনবেন। তিনি তোমাদের প্রতি করুণা করবেন এবং যে সব জাতিদের মধ্যে তোমাদের ছড়িয়ে দেবেন তাদের মধ্য থেকে তিনি আবার তোমাদের কুড়িয়ে আনবেন। 4আকাশের শেষ সীমানায়ও যদি তোমাদের ফেলে দেওয়া হয় সেখান থেকেও তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমাদের কুড়িয়ে আনবেন। 5তোমাদের পূর্বপুরুষদের দেশেই তিনি তোমাদের ফিরিয়ে আনবেন আর তোমরা তা আবার দখল করবে। তিনি তোমাদের অনেক মংগল করবেন এবং তোমাদের পূর্বপুরুষদের চেয়েও তোমাদের লোকসংখ্যা বাড়িয়ে দেবেন। 6তোমরা যাতে তোমাদের সমস্ত মন-প্রাণ দিয়ে তাঁকে ভালবেসে বেঁচে থাক সেইজন্য তিনি তোমাদের ও তোমাদের বংশধরদের অন্তরের সুন্নত করবেন। 7এই সব অভিশাপ তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমাদের শত্রুদের উপর আনবেন যারা তোমাদের ঘৃণা ও অত্যাচার করবে। 8তখন তোমরা আবার সদাপ্রভুর বাধ্য হয়ে চলবে আর তাঁর যে সব আদেশ আজ আমি তোমাদের দিচ্ছি তা মেনে চলবে। 9“তখন তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু সব দিক থেকে তোমাদের মংগল করবেন। তিনি তোমাদের কাজকর্মে আশীর্বাদ করবেন এবং তোমাদের সন্তানের সংখ্যা, পশুর বাচ্চা এবং জমির ফসল বাড়িয়ে দেবেন। তোমাদের পূর্বপুরুষদের উপর তাঁর যে আনন্দ ছিল তোমাদের উপর আবার সেই আনন্দ নিয়ে তিনি তোমাদের মংগল করবেন- 10অবশ্য যদি তোমরা তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর বাধ্য হয়ে এই আইন-কানুনের বইয়ে লেখা তাঁর সব আদেশ ও নিয়ম পালন কর আর মনে-প্রাণে তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর দিকে ফেরো। 11“আজ আমি তোমাদের যে আদেশ দিচ্ছি তা পালন করা তোমাদের পক্ষে তেমন শক্ত নয় কিম্বা এই আদেশ তোমাদের নাগালের বাইরেও নয়। 12এই আদেশ স্বর্গে তুলে রাখা কোন জিনিস নয় যে, তোমরা বলবে, ‘কে স্বর্গে গিয়ে তা এনে আমাদের শোনাবে যাতে আমরা তা পালন করতে পারি? ’ 13এটা সমুদ্রের ওপারের কোন জিনিসও নয় যে, তোমরা বলবে, ‘কে সমুদ্র পার হয়ে গিয়ে তা এনে আমাদের শোনাবে যাতে আমরা তা পালন করতে পারি? ’ 14সদাপ্রভুর কথা তোমাদের সংগেই রয়েছে; রয়েছে তোমাদের মুখে ও অন্তরে যাতে তোমরা তা পালন করতে পার। 15“দেখ, আজ আমি তোমাদের সামনে যা তুলে ধরছি তা হল জীবন ও মংগল কিম্বা মৃত্যু ও অমংগল। 16আজ তোমাদের কাছে আমার আদেশ এই যে, তোমরা তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুকে ভালবাসবে, তাঁর পথে চলবে এবং তাঁর আদেশ, নিয়ম ও নির্দেশ মেনে চলবে। তাহলে তোমরা বাঁচবে এবং সংখ্যায় বেড়ে উঠবে, আর যে দেশ তোমরা দখল করবার জন্য যাচ্ছ সেখানে তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমাদের আশীর্বাদ করবেন। 17“কিন্তু যদি তোমাদের অন্তর তাঁর কাছ থেকে সরে যায় এবং তোমরা তাঁর অবাধ্য হও আর যদি তোমরা দেব-দেবতার পূজার টানে তাদের কাছে মাথা নীচু কর, 18তবে আজ আমি তোমাদের বলে দিচ্ছি যে, তোমরা নিশ্চয়ই ধ্বংস হয়ে যাবে। যর্দন নদী পার হয়ে যে দেশ তোমরা দখল করতে যাচ্ছ সেখানে তোমরা বেশী দিন বেঁচে থাকবে না। 19“তোমাদের বিরুদ্ধে মহাকাশ ও পৃথিবীকে সাক্ষী রেখে আমি বলছি যে, আজ আমি তোমাদের সামনে জীবন কিম্বা মৃত্যু এবং আশীর্বাদ কিম্বা অভিশাপ তুলে ধরলাম। তোমরা জীবনকে বেছে নাও, যেন তোমরা ও তোমাদের ছেলেমেয়েরা বেঁচে থাক ও তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুকে ভালবাস, তাঁর কথা শোন এবং তাঁকে আঁক্‌ড়ে ধরে রাখ, কারণ এগুলোর মধ্যেই রয়েছে তোমাদের জীবন। যে দেশ দেবার শপথ তিনি তোমাদের পূর্বপুরুষ অব্রাহাম, ইস্‌হাক ও যাকোবের কাছে করেছিলেন সেখানে এগুলোর মধ্যেই রয়েছে তোমাদের আয়ু।”

will be added

X\