২ করিন্থীয় 6

1ঈশ্বরের সহকর্মী হিসাবে আমরা তোমাদের এই অনুরোধ করছি, তোমরা যখন ঈশ্বরের দয়া পেয়েছ তখন তা নিষ্ফল হতে দিয়ো না। 2ঈশ্বর পবিত্র শাস্ত্রে বলেছেন, “উপযুক্ত সময়ে আমি তোমার কথা শুনেছি এবং পাপ থেকে উদ্ধার পাবার দিনে আমি তোমাকে সাহায্য করেছি।” দেখ, এখনই উপযুক্ত সময়, আজই উদ্ধার পাবার দিন। 3খ্রীষ্টের জন্য আমরা যে কাজ করি তার যেন নিন্দা না হয় সেইজন্য আমরা এমন কিছু করি না যার দ্বারা কেউ কোন রকমে মনে বাধা পায়। 4তার চেয়ে বরং সব ব্যাপারেই ঈশ্বরের সেবাকারী বলে আমরা নিজেদের প্রমাণ করি। অত্যাচার, বিপদ ও কষ্টের মধ্যে অনেক ধৈর্য ধরে আমরা এই প্রমাণই দিচ্ছি। 5কতবার আমাদের মারধর করা হয়েছে, কতবার জেলে দেওয়া হয়েছে, কত দাংগা- হাংগামা আমাদের উপর দিয়ে গেছে, কত পরিশ্রম করেছি, কত রাত আমরা না ঘুমিয়ে কাটিয়েছি এবং কতবার না খেয়ে থেকেছি। 6এছাড়া আমাদের খাঁটি জীবন দ্বারা, আমাদের জ্ঞান, সহ্যগুণ ও দয়া দ্বারা, পবিত্র আত্মা দ্বারা, আমাদের খাঁটি ভালবাসা দ্বারা, 7সত্যের প্রচার দ্বারা এবং ঈশ্বরের শক্তি দ্বারা আমরা প্রমাণ দিচ্ছি যে, আমরা ঈশ্বরের সেবাকারী। আবার দুই হাতে ন্যায়ের অস্ত্রশস্ত্র তুলে নিয়ে আমরা প্রমাণ করছি যে, আমরা ঈশ্বরের সেবাকারী। 8লোকে আমাদের সম্মান করুক বা অসম্মান করুক, আমাদের বিষয়ে ভাল বলুক বা মন্দ বলুক, আমরা প্রমাণ করছি যে, আমরা ঈশ্বরের সেবাকারী। লোকে আমাদের ঠগ বলে, কিন্তু আসলে আমরা সত্যের পথে চলি। 9লোকে আমাদের চিনতে চায় না, কিন্তু সবাই আমাদের চেনে। আমরা মরবার মত হচ্ছি, তবুও বেঁচে আছি। আমাদের মারধর করা হচ্ছে, তবুও মেরে ফেলা হচ্ছে না। 10আমরা অনেক দুঃখ পাচ্ছি. তবুও আমাদের অন্তর সব সময় আনন্দে ভরা। আমরা নিজেরা গরীব, তবুও আমরা অনেককে ধনী করছি। আমাদের কিছুই নেই, তবুও আমরা সব কিছুর অধিকারী। এইভাবেই আমরা প্রমাণ করছি যে, আমরা ঈশ্বরের সেবাকারী। 11করিন্থীয় বিশ্বাসীরা, আমরা তোমাদের কাছে খোলাখুলিভাবেই কথা বলেছি এবং তোমাদের কাছে আমাদের অন্তর সম্পূর্ণভাবে মেলে ধরেছি। 12আমরা আমাদের অন্তর তোমাদের জন্য খুলে রেখেছি, কিন্তু তোমরা তোমাদের অন্তর আমাদের বিরুদ্ধে বন্ধ করে রেখেছ। 13আমার সন্তান হিসাবে আমি তোমাদের বলছি, আমরা যেমন তোমাদের জন্য আমাদের অন্তর খুলে রেখেছি তোমরাও তেমনি তোমাদের অন্তর আমাদের জন্য খুলে দাও। 14তোমরা অবিশ্বাসীদের সংগে একই জোয়ালে কাঁধ দিয়ো না। ন্যায়ের সংগে অন্যায়ের যোগ কোথায়? আলো ও অন্ধকারের মধ্যে কি যোগাযোগ আছে? 15খ্রীষ্টের সংগে বলীয়ালের, অর্থাৎ শয়তানের মিলই বা কোথায়? ঈশ্বরের লোক হিসাবে বিশ্বাসীর যে অধিকার তাতে অবিশ্বাসীর অংশ কি? 16আর ঈশ্বরের থাকবার ঘরে প্রতিমার স্থান কোথায়? আমরা তো জীবন্ত ঈশ্বরের থাকবার ঘর। পবিত্র শাস্ত্রে ঈশ্বর বলেছেন, “আমি আমার লোকদের মধ্যে বাস করব, আর তাদেরই সংগে চলাফেরা করব। আমি তাদের ঈশ্বর হব, আর তারা আমার নিজের লোক হবে।” 17ঈশ্বর আরও বলেছেন, “এইজন্য তোমরা অবিশ্বাসীদের মধ্য থেকে বের হয়ে এস ও আলাদা হও। কোন অশুচি জিনিস ছুঁয়ো না, তাহলে আমি তোমাদের গ্রহণ করব।” 18এছাড়া “সর্বশক্তিমান প্রভু বলেন, ‘আমি তোমাদের পিতা হব আর তোমরা আমার ছেলেমেয়ে হবে।’ ”

will be added

X\